হিজলায় ইউপি সদস্যের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ হিজলা উপজেলায় ইউপি সদস্য বিএনপি নেত্রীর বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করেছে প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগ দলীয় নেতাকর্মীরা। গতকাল সোমবার এই হামলার সময় তার দুই ছেলেকে বেধড়কভাবে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে।
হিজলা-গৌরবদী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও মহিলা দলের একই ইউপির সভানেত্রী রাশিদা বেগমের ছেলে সাইফুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, মাদ্রার চর কুসুরিয়া গ্রামে ৫ একর জমি নিয়ে প্রতিবেশী চাঁন শরীফের সঙ্গে তাদের পূর্ব বিরোধ রয়েছে। বিরোধীয় জমির বিষয়ে জানানো হলে ভূমি অফিসের কর্মকর্তারা সোমবার সরেজমিন তদন্ত করে। এতে ক্ষিপ্ত হয় প্রতিপক্ষের লোকজন।
তদন্ত দল চলে যাওয়ার পর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন দফাদারের নেতৃত্বে ৩০/৪০ জনের একদল দুর্বৃত্ত লাঠিসোটা নিয়ে ওই গ্রামে তাদের ঘরে হামলা চালায়। হামলাকারীরা ঘর ভাংচুর, আসবাবপত্র তছনছ এবং তাকে ও ভাই নোমানকে বেধড়কভাবে পিটিয়ে আহত করেছে।
আওয়ামী লীগ নেতা আলাউদ্দিন দফাদার জানান, বিরোধীয় জমির সীমানা নির্ধারণের জন্য ভূমি অফিস থেকে সার্ভেয়ার এলে তিনিও ঘটনাস্থলে যান। এনিয়ে পরে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছে বলে তিনি শুনেছেন। তবে মারামারির সঙ্গে তিনি জড়িত ছিলেন না।
হিজলা থানার ওসি গোলাম ছরোয়ার জানান, হিজলা-গৌরবদী ইউনিয়নে এক ইউপি সদস্যের বাড়িতে প্রতিপক্ষরা হামলা ও ভাংচুর করেছে বলে তিনি শুনেছেন। কিন্তু এ ঘটনায় থানায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলে তিনি জানান।