হাসপাতাল থেকে নববধূর পলায়নের চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ অসুস্থতার নাটক করে প্রেমিকের সাথে পালানোর চেষ্টা করেছে নববধূ। কিন্তু বেরসিক পুলিশের বাধায় ব্যর্থ হয়েছে সে। গতকাল রবিবার বিকালে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে হাসপাতাল এলাকায় উৎসুক জনতা এবং রোগীর স্বজনদের মাঝে ব্যাপক চাঞ্চল্যকর পরিবেশ সৃষ্টি হয়।
নববধূর পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে, বিএম কলেজের অনার্স পড়–য়া ছাত্রী লোপা আক্তার। সে বাকেরগঞ্জ উপজেলার কাটাদিয়া গ্রামের সেলিম মোল্লার কণ্যা। গত ৩ মাস পূর্বে একই উপজেলার চরামদ্দি গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল খালেক হাওলাদারের ছেলে বরিশাল যুব উন্নয়ন’র অফিস সহকারী নজরুল ইসলাম’র সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে দেয়া হয় লোপার। তবে উঠিয়ে আনা বা কোন আনুষ্ঠানিকতা করা হয়নি।
এদিকে গত ১ মে লোপাকে আনুষ্ঠানিক ভাবে স্বামীর বাড়িতে উঠিয়ে নিয়ে আসা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ২ মে শনিবার স্বামী নজরুলের বাড়িতে বিবাহ উত্তর বউভাত এবং নবদম্পত্তিকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ঠিক সেভাবেই চলছিলো অনুষ্ঠান কার্যক্রম। কিন্তু হঠাৎ করেই অসুস্থ হয়ে পড়েন নববধূ লোপা। তাৎক্ষনিক ভাবে তাকে সেখান থেকে নিয়ে এসে শেবাচিম হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধিনে পঞ্চম তলায় ৩৮ নম্বর কেবিনে ভর্তি করা হয়।
এর একদিন পর গতকাল রবিবার বিকালে পরিবারের সদস্যদের অগোচরে কেবিন থেকে বের হয়ে উধাও হয়ে যান নববধূ লোপা। একটু পড়েই খোঁজা খুজি করলে লোপাকে নিচ তলায় তার পূর্বের প্রেমিকের সাথে পালাতে দেখে পরিবারের সদস্যরা। এসময় তারা ডাকা-ডাকি শুরু করলে প্রেমিক নববধূকে ফেলে রেখে মোটর সাইকেল চালিয়ে পালিয়ে যায়।
অপরদিকে ডাকা-ডাকির শব্দ পেয়ে হাসপাতালে কর্মরত পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌছে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকারী নববধূকে ধরে ফেলে। পরবর্তীকে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) হেলালুজ্জামান ঘটনাস্থলে গিয়ে এই বিষয়ে খোঁজ খবর নেন। কিন্তু স্বামী বা বাবার পরিবার থেকে কোন অভিযোগ না থাকায় লোপাকে তাদের জিম্মায় রেখে দিয়ে আসে পুলিশ। এ বিষয়ে প্রেমিকের নাম- ঠিকা বা পরিচয় জানতে চাইলে স্বামীকে রেখে পালাবার চেষ্টাকারী বিএম কলেজ ছাত্রী লোপা কোন প্রকার তথ্য জানাতে অপরাগতা প্রকাশ করেন।
তবে দায়িত্বরত এক শিক্ষানবিশ চিকিৎসকের সাথে আলাপতালে তিনি জানিয়েছেন, মেয়েটির শরীরে কোন প্রকার অসুস্থতার ছাপ পাওয়া যায়নি। সে সম্পূর্ণ ভাবে সুস্থ ছিলো। হয়তোবা প্রেমিকের সাথে পালাবার জন্যই পরিকল্পনা করে বিয়ের অনুষ্ঠানে অসুুস্থতার নাটক সাজিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয় ঐ নববধূ। এমনকি অভিযোগ স্বামীর পরিবারের সদস্যদের।