সড়ক দূর্ঘটনায় সাংবাদিক নাছিম উল আলম সস্ত্রীক আহত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ জাতীয় দৈনিক ইনকিলাবের বিশেষ সংবাদদাতা নাছিম উল আলম সড়ক দূর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন। গতকাল বিকেলে গৌরনদীর আশোকাঠি পেট্টোল পাম্প সংলগ্ন এলাকায় সংঘটিত এঘটনায় তার স্ত্রী আমিনা আলম, পুত্র সাকিবও আহত হয়। প্রত্যক্ষদর্শী ও পারিবারিক সূত্রের বরাত দিয়ে গৌরনদী প্রেসক্লাবের সভাপতি খন্দকার জহিরুল আলম জানান, সাংবাদিক নাছিম উল আলম পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ফরিদপুরের আটরশি দরবার শরীফ গিয়েছিলেন। সেখান থেকে প্রাইভেট কার যোগে ফেরার পথে বিকেল সাড়ে ৫টা নাগাদ তার গাড়ী চালক একটি যাত্রীবাহি বাস সাইড দিতে গিয়ে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেলে। এসময় গাড়িটি সড়কের পাশে একটি গাছের সাথে সজোরে ধাক্কা খেলে গাড়ীতে থাকা নাছিম উল আলম, তার স্ত্রী আমিনা আলম, পুত্র সাকিব আহত হয়। স্থানীয়রা ছুটে এসে আহতদের উদ্ধার করে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে গৌরনদীর স্থানীয় সাংবাদিকদের সহায়তায় নাছিম উল আলমসহ আহত অন্যান্যদের বরিশালে নিয়ে আসা হয়। পরে তাদের সার্জারি বিশেষজ্ঞ ডা. জহিরুল হক মানিকের তত্ত্ব¦বধানে ফেয়ার হেলথ  ক্লিনিকে রেখে চিকিৎসা দেয়া হয়। জানা গেছে, সাংবাদিক নাছিম উল আলম মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছেন। এছাড়া তার মুখমন্ডলসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম হয়েছে। দুর্ঘটনার পরপরই নাছিম উল আলম অচেতন হলে পড়লেও পরবর্তীতে চিকিৎসার মাধ্যমে তার জ্ঞান ফিরে আসে। বর্তমান তার শারিরীক অবস্থা আশংকামুক্ত বলেও জানা গেছে। এদিকে ইনকিলাবের বিশেষ সংবাদদাতা নাছিম উল আলমের আহত হওয়ার খবর পেয়ে বরিশালের প্রবীন সাংবাদিক নুরুল আলম ফরিদ, ইসমাইল হোসেন নেগাবান, আনিসুর রহমান স্বপন, শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পুলক চ্যাটার্জী, যুগ্ম সম্পাদক কাজী মিরাজ, কাউন্সিলর এস এম জাকির হোসেন, সাংবাদিক সুশান্ত ঘোষ, বেলায়েত বাবলু, নজরুল বিশ্বাস, কামরুল আহসান, গাজী শাহরিয়াজ, মুশফিক সৌরভ প্রমুখ ক্লিনিকে ছুটে যান। তারা সেখানে বেশকিছু সময় অবস্থান করে আহতদের খোজ খবর নেন।