সড়ক ও জনপদের দখল হওয়া ঘের জমি উদ্ধারের পদক্ষেপ নে

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ অবৈধভাবে দখলকৃত সড়ক ও জনপদ বিভাগের মাছের ঘের ও জমি উদ্ধারের কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি বলে জানা গেছে। গতকাল ওই দখলকৃত জমিতে দেয়া দখলদারদের টিনের বেড়া ভেঙে দেয়ার কথা থাকলেও বহস্যজনক কারণে সেখানে দিনভর বিভাগের কাউকে দেখা যায়নি। তবে দখল উদ্ধারের কেউ না গেলেও প্রকাশ্যে স্থানীয় ছিচকে দখলদারদের নিয়ে এলাকায় অবস্থানে ছিল আ’লীগের সাবেক নেতা মোঃ আলী খানের ছেলে চিহ্নিত দলখদার রেজা খান। স্থানীয়রা জানায়, দক্ষিণ রূপাতলী এলাকায় মজিবর ও তার পিতা ৩০ বছর ধরে ওই জমি দেখাশুনা করছেন। জমিটি ইজারা নেয়ার জন্য সড়ক ও পনপথ বিভাগে একাধিকবার আবেদনও করেছেন তিনি। যার সত্যতা স্বীকার করেছেন সড়ক ও জনপথ বিভাগ। কিন্তু স্থানীয় দখলদার রেজা খান। ২৫ শতাংশের ঐ সরকারি জমি দখলের জন্য দীর্ঘদিনের চেষ্টা করে আসা রেজা
বুধবার স্থানীয় অন্যান্য সন্ত্রাসীদের নিয়ে পিলার ও টিনের বেড়া দেয়। এ নিয়ে উভয় পক্ষে উত্তেজনার সৃষ্টি হলে পুলিশ গিয়ে বাধা দেয়। তবে তা উপেক্ষা করেই চলে দখল। অভিযোগ রয়েছে সরকারি জমি বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে দখল দিয়েছে। এ বিষয়ে সওজ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী খালেদ শহীদ বলেন, বিষয়টি খোজ নিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। তবে তা আর হয়নি। উল্টো দিনভর সেখানে ছিল দখলদারদের অবাধ বিচরণ। এ বিষয়ে রেজা খান এর সাথে আলাপকালে তিনি জানান, এই জমি তার লিজ নেয়া। এছাড়াও আশপাশের সব জমিই নাকি তাদের। তিনি তার জমিতে বেড়া দিয়েছেন। কেউ তাকে উচ্ছেদের ক্ষমতা রাখে না।