স্বামীর পরকিয়া প্রেম প্রতিরোধে স্ত্রী ওসিসিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ বেয়াইনের সাথে স্বামীর পরকিয়া প্রেম রুখতে ওয়ান স্টাপ ক্রাইসিস সেন্টারের আশ্রয়ে নিতে বাধ্য হয়েছে স্ত্রী খাদিজা বেগম। অন্যদিকে আধাহারে-অনাহারে দিন কাটাচ্ছে তিন শিশু সন্তান সাদিয়া, সিফাত ও রিফাত। ঘটনাটি ঘটেছে নগরীর ২৬ নং ওয়ার্ডের হরিনা ফুলিয়া গ্রামে।
জানাগেছে, ২০০৩ সালে প্রস্তুাবের মাধ্যমে ঝালকাঠীর রামচন্দ্রিপুর গ্রামের স্কুল শিক্ষক তৈয়ব আলী হাওলাদারের মেয়ে খাদিজার সাথে বিয়ে হয় বরিশাল নগরীর ২৬ নং ওয়ার্ডের হরিনা ফুলিয়া গ্রামের মৃত্যু আকবার খানের প্রেম পাগল ছেলে সাইফুল ইসলামের সাথে। বিয়ে করে স্ত্রী ঘরে রেখে সাইফুল নতুন ভাবে পরোকিয়া প্রেম শুরু করে দেয়। এ নিয়ে প্রায় তার স্ত্রীর সাথে ঝগড়া হতো। বিয়ের কয়েক বছরের মাথায় এই পরোকিয়া প্রেমে বাধা দেয়াকে কেন্দ্র করেই খাদিজা তার স্বামী সাইফুলের মারধরের শিকার হতে শুরু করে। সাইফুল-খাদিজার সংসারে বর্তমানে রয়েছে দেড় বছরের কন্য সন্তান সাদিয়া, সাড়ে চার বছরের পূত্র সন্তান রিফাত ও ৭ বছরের সিফাত। সংসারে নেই কোন অভাব আনাটন। কিন্তু সাইফুলের পরোকীয়া প্রেম নিয়ে সংর্ঘষ নিত্য দিনের সঙ্গি। ইতো পূর্বে পরোকীয়া প্রেমিকার সাথে একাধিকবার জনতার হাতে ধরা পরে সাইফুল। তবুও যেন লজ্জা নেই তার। গত দুই বছর ধরে সাইফুল তার বোনের ননদের (বেআইন) সাথে পরোকিয়া প্রেম আসক্ত হন। বেআইন কে নিয়ে সে পালিয়ে যায়। পরবর্তিতে জনতার হাতে ধরা পরে উত্তম-মাধ্যমের শিকার হয় সে। কিন্তু এরপরও যেন প্রেমের সাধ মেটেনি সাইফুলের। সে ফের পরোকিয়া প্রেম আসক্ত হলে তার স্ত্রীর বাধা দেয়। এতে স্ত্রী খাদিজা মারধরের শিকার হয়। এক পর্যায় স্ত্রীসহ তিন শিশু সন্তানের ভরন-প্রশন বন্ধ করে দেয় সাইফুল। বিষয়টি খাদিজা কোতয়ালী থানায় অভিযোগ করলে সেখানে সাইফুলকে ডেকে মুছলেকা নেয়া হয়। কিন্তু প্রেমের নেশা থেকে ফিরো আসতে পারে নি হরিনা ফুলিয়ার এই প্রেম পাগল সাইফুল। ফের স্ত্রীর খাদিজার উপর নেমে আসে নির্যাতন।
এ ঘটনার প্রেক্ষিতে গতকাল স্বামীর গৃহ ছেড়ে তিন সন্তান নিয়ে রাস্তায় নেমে আসে খাদিজা। শেষ পর্যন্ত সে স্বামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে গতকালই শেবাচিমের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারের আশ্রয় নেয়। ওসিসি কর্তৃপক্ষ জানিছে, নির্যাতনকারী সাইফুলের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জোর প্রস্তুতি চলছে। বর্তমানে সাইফুল হারিনা ফুলিয়া এলাকার একটি ব্যকারীতে কর্মরত আছেন। এ ব্যপারে অভিযুক্ত সাইফুল বলেন, পরিবারিক কলহের জের ধরে খাদিজা ঘর থেকে বেড়িয়ে গেছে। তাকে ফিরিয়ে আনার প্রস্তুতি চলছে।