স্কুল থেকে সন্তানদের নিয়ে যেতে বললেন প্রধান শিক্ষক

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বাকেরগঞ্জের কলসকাঠী ইউনিয়নের ৮৪নং ঢাপরকাঠী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ও ৩ সহকারি শিক্ষকের নির্ধারিত সময়ে অনুপস্থিতির কারণে তেমন কোন শিক্ষা গ্রহণ করতে পারছে না শিক্ষার্থীরা। এমনকি সরকার নির্ধারিত সময় পর্যন্ত ক্লাস না চলা এবং তাদের অনুপস্থিতির কারণ জিজ্ঞাসা করায় অভিভাবকদের উল্টো প্রধান শিক্ষক মো. সরোয়ার লাঞ্ছিত করেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এমনকি তাদের সন্তানদের স্কুল থেকে নিয়ে যেতেও বলেন তিনি। বিষয়টি জানিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছেন সেখানকার অভিভাবকরা। একাধিক অভিভাবক জানান, প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ক্লাস হওয়ার নিয়ম রয়েছে। যথা সময়ে প্রথম শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা উপস্থিত থাকলেও প্রধান শিক্ষক, সহকারি শিক্ষক আলোমতি, জান্নাতি ও মরিয়ম আসেন না। তারা ক্লাস শুরুর এক থেকে দেড় ঘন্টা পর স্কুলে প্রবেশ করেন। এরপর যেন-তেন ভাবে ২ থেকে ৩টি ক্লাস নিয়ে ২টার মধ্যে সকল ক্লাসকে ছুটি দিয়ে বাড়ি চলে যান। বছরের তিন মাস অতিবাহিত হলেও সেখানকার শিক্ষার্থীরা ক্লাসের পাঠ্য বই তেমন একটা বুঝে উঠতে পারেনি। বিশেষ করে অংক ও ইংরেজি নিয়ে বেশী বিপাকে পড়েছে শিক্ষার্থীরা। ক্লাস না হওয়ার বিষয়ে একাধিক অভিভাবক প্রধান শিক্ষক মো. সরোয়ারের নিকট জিজ্ঞাসা করলে তিনি উল্টো তাদের লাঞ্ছিত করেন। এমনকি স্কুল থেকে ছেলে মেয়েদের সরিয়ে নিয়ে যেতে বলেন বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। আর প্রধান শিক্ষক সরোয়ারের পথ অনুসরণ করছেন সহকারি শিক্ষক আলোমতি, জান্নাতি ও মরিয়ম। এ ব্যাপারে সাক্ষাৎকার নেয়ার জন্য প্রধান শিক্ষক মো. সরোয়ারের মোবাইলে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।