সৌহার্দ্য বেঁচে থাকুক আমাদের-ই মাঝে

মাত্র সাড়ে তিন মাসের সৌহার্দ্য। চোখের চঞ্চলতায় পৃথিবী জয়ের স্বপ্ন। বেসরকারী ছোট চাকুরিজীবী বাবা আর গৃহিনী মায়ের ছোট্ট সংসারে গত সাড়ে তিন মাস যাবত তাদের একমাত্র এই সন্তান সকল সুখের উৎস্য নিয়ে এসেছে তাদের পরিবারে। শত অভাব অনটন আর কষ্টগুলো হারিয়ে যেত যখন মা-বাবা এই সৌহার্দ্য’র মুখ পানে চেয়ে আগামী উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ এর স্বপ্ন দেখত। কিন্তু বিধাতার নির্মমতা তাদের এই সুখে বাধ সাধল। আকস্মিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ল সৌহার্দ্য। প্রথমত বরিশাল শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়ের শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ বিকাশ নাগের স্মরণাপন্ন হল এবং তার পরামর্শে শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি করা হলো সৌহার্দ্যকে। কিন্তু অবস্থা দিন দিন আরো অবনতি হতে থাকল। এমতাবস্থায় বরিশাল থেকে ঢাকা শিশু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হলো সৌহার্দ্যকে। সেখানে বিছানায় অপ্রতুলতার কারনে ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হলো। কিন্তু সাড়ে তিন মাস বয়সের শিশুদের আইসিইউ ব্যবস্থা না থাকায় ধানমন্ডি লালমাটিয়ার একটি বেসরকারী শিশু হাসপাতালে ডাঃ প্রফেসর কাশেম সরকারের তত্ত্বাবধানে ভর্তি করা হয়। সেখানেই যাবতীয় পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে ত্রুটিযুক্ত হৃদপিন্ড নিয়ে সৌহার্দ্য জন্ম নিয়েছে তা ধরা পরে। এমতাবস্থায় চিকিৎসক সৌহার্দ্যকে যত দ্রুত সম্ভব ভারতের স্কট হসপিটাল নিউ দিল্লি হাসপাতালে স্থানান্তর করে অস্ত্রপচার করার জন্য পরামর্শ দেন। এ অস্ত্রপচারে আনুমানিক ২০-২৫ লক্ষ টাকার পয়োজন। যা কিনা চাকুরিজীবী পিতা নিলয় খাসকেল এর কাছে শুধুই স্বপ্ন। আজ সৌহার্দ্যকে নিয়ে তাদের সব আশা ফিকে হয়ে গেছ্ েশুধু অর্থাভাবে সন্তানের প্রতি দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ নিলয় খাসকেল আজ আমাদের মুখের দিকে চেয়ে আছে। আমরা কি পারি না তার ছোট্ট সেই সুখের পরিবারে সুখটুকু আবার ফিরিয়ে দিতে? আমরা যারা আজ অর্থের মাপকাঠিতে সমাজের উচু মহলে বসবাস করছি, নিচে থাকা এই সকল সৌহার্দ্যদের প্রতি আমাদের কি কোন দায়িত্ব নেই? অবশ্যই আছে। আমরা পারিনা বিবেক নামের সেই চেতনাকে মাটি চাপা রেখে নিজের দায়িত্ব থেকে সরে দাড়াতে। তাই সৌহার্দ্যকে বাচিয়ে রাখার দায়িত্ব আমার আমাদের সকলের।
আসুন! হতাশাগ্রস্ত পিতা নিলয় এর হাতে হাত রেখে কথা দেই, জীবন-মৃত্যুর নিশ্চয়তা না দিতে পারলেও আমাদের সহযোগিতা সৌহার্দ্য’র চিকিৎসার পূর্ন নিশ্চয়তা দেবে।
সহযোগীতা পাঠানো ঠিকানাঃ
নিতাই চন্দ্র খাসকেল
একাউন্ট নং- সঞ্চয়ী হিসাব নং- ১০০৩১৫৪৪৬
সোনালী ব্যাংক কর্পোরেট শাখা।
বরিশাল।
মোবাইলঃ ০১৭১২-২৬১২৪১, ০১৯৬৩-৬১৩১২৫