সেতু মন্ত্রী ও র‌্যাব প্রধানের পরিচয়ে প্রতারণাকারী তিন প্রতারক আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যোগাযোগ মন্ত্রী ও র‌্যাব প্রধানের পরিচয় দিয়ে মোবাইল ফোনে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাত করার অপরাধে ৩ জনকে আটক করছে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। গতকাল রোববার দুপুরে আটককৃতরা হলো- যোগাযোগ মন্ত্রী পরিচয়দানকারী ফরিদপুরের ভাঙ্গার ব্রাক্ষনপাড়া এলাকার রাধানাথ বাছাড়ের ছেলে পরিমল বাছাড় (৪০), র‌্যাব প্রধান পরিচয়দানকারী পরিমল মন্ডলের ছেলে সবুজ মন্ডল (১৮) ও বিকাশের মাধ্যমে টাকা উত্তোলনকারী নারায়ন বাছাড়ের ছেলে অমিত বাছাড় (১৩)।
বরিশাল জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে জেলা ডিবি পুলিশ সংবাদ সম্মেলনের অভিযান সম্পর্কে এ তথ্য দেয়।
সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হয়, ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার মগর গ্রামের লেবানন প্রবাসী মো. মামুনের স্ত্রী কলি আক্তার। গত ২৫ মার্চ বাকেরগঞ্জ উপজেলার লক্ষ্মীপাশা গ্রামে দূর সম্পর্কের বোন আম্বিয়া বেগমের বাড়িতে বেড়াতে যায়। ওই সময়ে ০১৭৫৮৪৪৪৪৯৬ নম্বর থেকে কলি আক্তারের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে অজ্ঞাত নারী জানান র‌্যাবের প্রধান তার সাথে কথা বলবে।
র‌্যাব প্রধান পরিচয় দেয়া ব্যক্তি ২৫ হাজার টাকা দাবী করে, যা না পেলে বিদেশে থাকা তার স্বামীর ক্ষতি সাধন করবেন। এরপর তিনি দ্রুত বিকাসের মাধ্যমে এই ০১৭৪১০৩২৪৪২ নম্বরে ২৪ হাজার ৫০০ টাকা পাঠিয়ে দেন। এর কিছুক্ষন পরে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নম্বরে একই নম্বর থেকে কল এলে অবাক হয়েও রিসিভ করেন।
ফোনকারী নিজেকে যোগাযোগ মন্ত্রী বলে দাবী করে প্রবাসী স্বামীকে খুন করার ভয় দেখিয়ে ৫৫ হাজার টাকা দাবী করেন। এরপর তিনি প্রতারক চক্রের দেয়া আরো ৩ টি নাম্বরে বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠিয়ে দেন। বিষয়টি কলি তার অভিভাবকদের সাথে কথা বলে বুঝতে পারেন তিনি কোন প্রতরাণার ফাঁদে পা দিয়েছেন। এরপর তিনি গত ১৬ এপ্রিল অজ্ঞাত আসামীদের বিরুদ্ধে বাকেরগঞ্জ থানায় মামলা করেন।
ওই মামলার ভিত্তিতে বরিশাল জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের একটি দল ভাঙ্গা থানাধীন ব্রাক্ষ্মনপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন এবং এই তিনজনকে আটক করেন।
অভিযানে নেতৃত্বে থাকা ডিবি পুলিশের এসআই তুষার কুমার মন্ডল জানান, অভিযানের প্রথমে তারা টাকা উত্তোলন করার কাজে নিয়োজিত অমিত বাছাড়কে আটক করেন। পরে তার মাধ্যমে শনিবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে যোগাযোগ মন্ত্রী পরিচয়দানকারী পরিমল বাছাড় ও র‌্যাব প্রধান পরিচয়দানকারী সবুজ মন্ডলকে আটক করেন। এ সময় মূল প্রতারক সহ ৪/৫ জন পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। আটককৃতদের কাছ থেকে ৫ হাজার টাকা ও ৪ টি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়।
প্রতারকরা এসব ঘটনায় একটি আধুনিক সফটওয়ার ব্যবহার করছে বলে জানিয়েছে ডিবি পুলিশ। সংবাদ সম্মেলনে বরিশাল জেলার এসপি এসএম আক্তারুজ্জামানসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।