সাবেক মেয়র হিরনকে হারানোর শোকের দিন আজ

রুবেল খান॥ দেখতে দেখতে কেটে গেলো বরিশালবাসীর প্রান প্রিয় নেতা ও সিটির সাবেক সফল মেয়র এ্যাড. শওকত হোসেন হিরণ’র মৃত্যুর একটি বছর। আজ ৯ এপ্রিল প্রিয় এই মানুষটির প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী। তারই প্রচেষ্টায় গড়া বরিশাল নগরীর নানা উন্নয়ন এখন আজ দৃশ্যমান। রাজাবাহাদুর সড়ক, বঙ্গবন্ধু উদ্যান আর মুক্তিযোদ্ধাপার্ক সহ নানা স্থানে লাগানো সৌন্দর্য বর্ধনের গাছগুলো গত এক বছরে অনেকটা বড় হয়েছে। বিজলি বাতিগুলোও আলোকিত করছে রাতের নগরীকে। বিশ্বের দরবারে আজো মাথা উচু করে আছে আধুনিক ও সবুজ শ্যামল এই নগরী। শুধু নেই একটি মানুষ। যার প্রচেষ্টায় প্রাণ প্রিয় শহর বরিশাল এবং বরিশাল বাসীকে দিয়েছেন একটি অপরূপ সৌন্দর্য ও শান্তির সবুজ নগরী উপহার। রাজনীতিতে সহবস্থান সৃষ্টিকারী শান্তি প্রিয় আমাদের সেই প্রিয় নেতা সাবেক সফল সিটি মেয়র শওকত হোসেন হিরণ। তিনি নেই তবু রয়েছে তার কর্ম আর গুন দিয়ে এখানো আমাদের মাঝে অমর হয়ে আছেন শওকত হোসেন হিরণ।
আজ প্রিয় এই মানুষটির মৃত্যু বার্ষিকী পালনে বরিশালে যেন আবার নতুন করে শোকের চাদরে ঢেকে গেলো। নগরীর প্রতিটি রাস্তা, গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা আর প্রয়াতের প্রিয় স্থানগুলোতে মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে শোভা পেয়েছে নানা রকমের ব্যানার, পোষ্টার, ফেস্টুন আর বিশাল আকারের বিল বোর্ড। এর সব কিছুতেই রয়েছে প্রয়াত শওকত হোসেন হিরণ’র স্মৃতি বিজরীত বিশেষ মূহুর্তের কিছু ছবি আর শোভা পেয়েছে তারই প্রচেষ্টায় সৃষ্টি হওয়া নানা উন্নয়নের চিত্র।
এদিকে প্রিয় এই নেতার মৃত্যু বার্ষিকী পালনে নগরীতে পালন করা হবে দুই দিন ব্যাপী নানা কর্মসূচী। শওকত হোসেন হিরণ’র প্রিয় সংগঠন আওয়ামী লীগ সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামজিক সংগঠন ও মালিকানাধিন প্রতিষ্ঠানের গৃহীত কর্মসূচির শুরু হবে আজ ভোর থেকেই। প্রয়াত ও বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত হোসেন হিরণ’র মৃত্যু বার্ষিকী যথাযোগ্য মর্জাদায় পালনের লক্ষে আজ ৯ এপ্রিল মৃত্যু বার্ষিকীর দিন সূর্যদয়ের সাথে সাথে শহীদ সোহেল চত্ত্বরের দলীয় কার্যালয়ে কালোপতাকা উত্তোলন এবং দলীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা, নেতা-কর্মীদের শোকের প্রতীক কালো ব্যাচ ধারন, সকাল ৯টায় মুসলিম গোরস্থানে প্রয়াতের কবর জিয়ারত ও ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন, দিন ব্যাপী দলীয় কার্যালয়ে কোরআন তেলাওয়াত ও বাদ মাগরিব মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত হবে মিলাদ ও দোয়া-মোনাজাত। এর পাশাপাশি প্রতিটি ওয়ার্ডে দিনভর কোরআন তেলাওয়াত, নগরীর ৩৬০টি মসজিদে বাদ আসর মিলাদ ও দোয়া-মোনাজাত ও কাঙালী ভোজ। আগামীকাল ১০ এপ্রিল শুক্রবার বাদ জুমা নগরীর মসজিদগুলোতে বিশেষ দোয়া-মোনাজাতের কর্মসূচি দিয়েছে নগর আওয়ামী লীগ। প্রয়াত এই নেতার কর্মসূচি মৃত্যু বার্ষিকী পালনে পিছিয়ে নেই বরিশাল সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ। বর্তমান মেয়র মো. আহসান হাবিব কামাল এর বিশেষ উদ্দ্যোগে নেয়া হয়েছে সাবেক মেয়র শওকত হোসেন হিরণ’র মৃত্যু বার্ষিকী পালনে দিব ব্যাপী নানা কর্মসূচি। বিসিসি’র গৃহিত কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে কোরআন তেলাওয়াত, শোক সভা এবং মিলাদ ও দোয়া-মোনাজাত। প্রয়াতের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী পালনে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগ, যুবলীগের পাশাপাশি বরিশাল ক্লাব লিমিটেড, এ্যাপোলো গ্রুপ, প্লানেট পার্ক সহ যেসব প্রতিষ্ঠানের সাথে শওকত হোসেন হিরণ সম্পৃক্ত ছিলেন সেই সব প্রতিষ্ঠানে তার মৃত্যু বার্ষিকী পালনে নানা কর্মসূচি পালন করবেন। এছাড়াও পারিবারিক ভাবে গ্রহন করা হয়েছে মৃত্যু বার্ষিকী পালনে নানা কর্মসূছি। প্রয়াতের সহধর্মীনি বরিশাল সদর আসনের সাংসদ জেবুন্নেছা আফরোজ হিরণ’র উদ্যোগে সকাল থেকে বাংলাবাজার নূরীয়া স্কুল সংলগ্ন হিরণ পয়েন্টে প্রয়াতের রূহের মাগফেরাত কামনায় কোরআনখানি অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া নূরীয়া স্কুল মাঠে আয়োজন করা হয়েছে মিলাদ ও দোয়া-মোনাজাতের। এদিকে প্রয়াক শওকত হোসেন হিরণ’র পৃথম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে নগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক গুলোতে শোকের প্রতিক কালোপতাকা টানানো হয়েছে। এছাড়া আজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে কালোপতাকা উত্তোলন করার জন্য বিশেষ অনুরোধ জানানো হয়েছে। এছাড়াও প্রয়াত এমপি’র রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিভিন্ন নেতা-কর্মীর ছবি সম্বলিত পোষ্টার, ব্যানার, বিলবোর্ড আর শোকের প্রতীক কালোপতাকায় ঘেরা প্রায় ৩০টি তোড়নে ছেয়ে গেছে মহানগরী। নগরীর প্রান কেন্দ্র সদর রোড, বিবির পুকুর পাড়, জিলা স্কুল মোড় সহ গুরুত্বপূর্ন পয়েন্টে শোভা পেয়েছে হিরনের স্মৃতি বিজরীত ছবি ও নানা উন্নয়নের চিত্র। ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে জিলা স্কুল মোড়ে স্থাপন করা হয়েছে প্রয়াত শওকত হোসেন হিরণ’র প্রতীকৃতি।
এছাড়া কর্মসূচি গ্রহন করেছে বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ বরিশাল মহানগর শাখা। মৃত্যু বার্ষিকী পালনের লক্ষে আজ ৯ এপ্রিল মরহুমের আত্মার শান্তি কামনায় নগরীর প্রতিটি মঠ, মন্দির ও আশ্রম প্রাঙ্গনে পূজা ও প্রর্থনা করা হবে। এছাড়া আগামী ১০ এপ্রিল শুক্রবার সন্ধ্যায় ধর্মরক্ষিনী সভাগৃহে এক স্মরন সভার আয়োজন করা হয়েছে।