সাংসদ জেবুন্নেছাসহ ১৪ জনকে শোকজ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্যে করা মামলায় বরিশাল সিটি কলেজ পরিচালনা পর্র্ষদের সভাপতি সাংসদ জেবুন্নেছা আফরোজ সহ ১৪ জনকে কারন দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে আদালত। কেন নিয়োগ সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম বন্ধে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে না জানতে চেয়ে নোটিশ প্রাপ্তির ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন ১ম যুগ্ম জেলা জজ আদালতের বিচারক মোঃ আব্দুল হামিদ। নোটিশ প্রাপ্ত অন্যান্যরা হলো সিটি কলেজের অধ্যক্ষ, কলেজ পরিচালনা পর্ষদের বিদ্যুৎসাহী সদস্য কেবিএস আহাম্মেদ কবির, গাজীপুর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ পরিদর্শক, রেজিষ্ট্রার, উপাচার্য, রূপালি ব্যাংকের ব্যবস্থাপক। আরও রয়েছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক, শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের সচিব, নগরীর বাসিন্দা জামাল, বিএম কলেজ মুসলিম হোস্টেলের মোকলেচ, নিয়োগ পাওয়া ফারজানা, সুমি ও সুমাইয়া মজুমদার। নালিশি মামলা সূত্রে জানাগেছে বরিশাল সিটি কলেজের অধ্যক্ষ সহ ৮টি পদে শিক্ষক নিয়োগের জন্য গত বছরের ৬ এপ্রিল জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রকাশ করা হয়। এর প্রেক্ষিতে জুয়েল সমাজ কর্ম বিভাগে ও শেফালি কৃষি বিজ্ঞান বিভাগে নিয়োগ পাওয়ার জন্য আবেদন করে। আবেদনের পর গত ২০ ও ২৭ জুলাই বিএম কলেজ প্রশাসনিক ভবনে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় জুয়েল অংশগ্রহণ করে ১ম হয়।
মামলার অপর বাদী শেফালি অভিযোগ আনেন, তাকে বিবাদী সুমি ও ফারজানা পরীক্ষায় অংশ নিতে না পারে সেই জন্য সন্ত্রাসী ভাড়া করে অবরুদ্ধ করে।
মামলার অপর বিবাদীরা সুমি ও ফারজানাকে নিয়োগ দেয়ার পরিকল্পনা করেছে। এ ঘটনায় বুধবার আদালতে মামলা করেন নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নেয়া প্রার্থী জিবেশ কর্মকার জুয়েলসহ ৫ সদস্য। এর প্রেক্ষিতে বিচারক ওই আদেশ দেন।