সরকার আবারো ৫ জানুয়ারীর স্বপ্ন দেখছে -বিএনপির যুগ্ন মহাসচিব সরোয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ন মহাসচিব ও মহানগর বিএনপির সভাপতি এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার বলেছেন, জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নেয়াই হচ্ছে অবৈধ সরকারের উন্নয়ন। যেখানে জনগনের ভোটের অধিকার নেই, সেখানে কোন উন্নয়ন হতে পারেনা। তাছাড়া দেশে শান্তি, আইনের শাসন, ন্যায়বিচার এবং গনতন্ত্রকে বাদ দিয়ে কোন উন্নয়নই সম্ভব নয়। কিন্তু বর্তমান সরকার মনে করছে রাজাকার, আলবদরদের বিচারই হচ্ছে গনতন্ত্রের প্রধান কাজ।
গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে দেশব্যাপী কর্মসূচীর অংশ হিসেবে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত নগরীর সদর রোড টাউন হল সংলগ্ন দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচী পালন করা হয়।
কর্মসূচীতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি বলেন, দেশের উন্নয়ন হচ্ছে জনগনের মানবিকতার উন্নয়ন। যেখানে ন্যায়বিচার নাই, আইনের শাসন নাই সেখানে উন্নয়ন কোথায়? দেশের প্রতিটি দপ্তর আজ দুর্নীতি গ্রস্থ। আর বর্তমান সরকারের লোকেরাই এই দুর্নীতির সাথে জড়িত। সরোয়ার আরো বলেন, দেশ ও জনগণের জন্য কথা বলার মত কোন বিরোধী দল নেই। সরকার অবৈধ ভাবে টিকে থাকার জন্য সংসদে গৃহ পালিত বিরোধী দল লালন-পালন করছে। আজ যারা তথা কথিত বিরোধী দলে আছেন, তারা নির্বাচন থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিতে চাইলে সরকারের ইশারায় সেদিন প্রশাসন তাদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নিতে দেয়নি। তাছাড়া সরকার সকল শহীদের রক্তের সাথে বেঈমানী করে মসনদ দখল করে রাখার রাজনীতি করছে। কথিত গণতন্ত্রের নামে আজ অবৈধ সরকার দেশের মানুষের বাক স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছে। তাই দেশের মানুষের ভোটের অধিকারসহ গণতন্ত্র পুনঃরুদ্ধারের জন্য সকলকে প্রস্তুত থাকার আহবান জানান তিনি।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সরোয়ার আবারো গ্যাসের দাম বাড়ানোয় সরকারের সমালোচনা করে বলেন, সারা পৃথিবীতে জ¦ালানী তেলের মূল্য কমানো হলেও একমাত্র বাংলাদেশে জ¦ালানী তেলের মূল্য কমেনি। বারবার বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করে জনজীবন বিষিয়ে তুলছে সরকার। এর উপর আবার গ্যাসের দাম বাড়িয়ে জনগনের উপর অতিরিক্ত বোঝা চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, সরকার আবারো ৫ জানুয়ারীর স্বপ্ন দেখছে। আইন তৈরী না করে আওয়ামী লীগের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। এটা দলীয় নির্বাচন কমিশন। এই সরকারের অধিনে এই নির্বাচন কমিশন কোন কাজ করতে পারবে না। অতীতে বাংলাদেশের মানুষ নিরপেক্ষ সরকারের অধিনে ভোট দিতে পেরেছে। বিএনপি চায় নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকার, নিরপেক্ষ সরকার।
সাবেক এমপি সরোয়ার বলেন, এখন মন্ত্রীর বাসায় ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত হয়। আবার মন্ত্রীর বাসায় ধর্মঘট প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হয়। মাঝখানে কস্ট করে দেশের মানুষ। আত্মহুতি দেয় শ্রমিকরা। দেশের মানুষ এই সরকারের অবস্থা না বুঝলে, জনগন বোবা হয়ে থাকলে স্বাধীনতা রক্ষা করা যাবে না।
মহানগর বিএনপি সিনিয়র সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান খান ফারুকের সভাপতিত্বে অবস্থান কর্মসূচীতে আরো বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপি ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক জিয়া উদ্দিন সিকদার, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আনোয়ারুল হক তারিন, কোতয়ালী বিএনপি সাধারন সম্পাদক আনোয়ার হোসেন লাবু, জেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক শাহেদ আকন স¤্রাট, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাসুদ হাসান মামুন মহানগর ছাত্রদলের আহবায়ক খন্দকার আবুল হাসান লিমন প্রমুখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক সৈয়দ আকবর, মীর জাহিদুল কবীর জাহিদ, এ্যাড. আক্তার হোসেন মেবুল, সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলাউদ্দিন, প্যানেল মেয়র শরীফ তাসলিমা কালাম পলি, সাবেক চেয়ারম্যান নুরল আমিন, যুবদল নেতা কামরুল হাসান রতন, আলহাজ্ব মন্টু খান, পারভেজ আকন বিপ্লব, ছাত্রদলনেতা আরিফুর রহমান মুন্না, মহানগর বিএনপির তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন প্রমুখ। এদিকে, বিএনপি’র অবস্থান কর্মসূচীকে ঘিরে যে কোন অনাকাংখিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় সতর্ক ছিলো পুলিশ সহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।