সন্ত্রাসী হামলায় চোখ হারাচ্ছে কলেজ ছাত্র

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুতর আহত রফিকুল ইসলাম নামে এক কলেজ ছাত্র হারাতে বসেছে তার চোখের দৃষ্টি। ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার পশ্চিম ফুলুহার গ্রামে গত চার দিন পূর্বে হামলার শিকার এই কলেজ ছাত্রকে হাসপাতালের চক্ষু বিভাগে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। চিকিৎসক জানিয়ে দিয়েছে হাতুড়ের আঘাতের কারনে কলেজ ছাত্রের বাম চোকের দৃষ্টি শক্তি হারিয়ে ফেলেছে। তবে ডান পাশের চোখটি ভালো হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
আহত কলেজ ছাত্র রফিকুল ইসলাম ঐ গ্রামের আব্দুস সোবাহান শরীফের ছেলে। সে রাজাপুর ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।
আহত’র বাবা সোবাহান শরীফ জানায়, সম্প্রতি তাদের গ্রামের চারাখালি আজিজিয়া দাখিল মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে মারামারি হয়। ঐ ঘটনার জের ধরে ৩ জুন শব-ই-বরাতের দিন সকাল ৮টার দিকে পার্শ্ববর্তী বারেক ফরাজির ছেলে মামুন, কামাল উদ্দিনের ছেলে রফিকুল, আলতাফ হোসেনের ছেলে করিম, সিদ্দিকের ছেলে আজিজুর রহমান ও সিদ্দিক মোল্লার ছেলে ফাইজুল সহ ২০/২৫ জনের একদল কিশোর সন্ত্রাসী সংঘবদ্ধ হয়ে প্রতিপক্ষের উপর হামলা চালাতে যায়। পথিমধ্যে হাওলাদারের হাট নামক স্থানে কলেজ ছাত্র রফিকুল ইসলাম ও তার সহপাঠি বন্ধু সোহেল আকনকে পেয়ে কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় হকিস্টিক ও হাতুড়ি দিয়ে এলোপাথারী পিটিয়ে আহত করে তাদের। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে রাজাপুর হাসপাতালে ভর্তি করে। তার মধ্যে মুমূর্ষু অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রফিককে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের চক্ষু বিভাগে ভর্তি করে।
এ বিভাবের সহকারী রেজিষ্ট্রার জানিয়েছেন, হাতুড়ের আঘাতে রফিকের বাম চোখের মনি ফেটে গেছে। যে কারনে সে এখন আর চোখে দেখছে না। আপাতত রোগীকে অভজারভেশনে রাখা হয়েছে। পরে বিষয়টি বোঝা যাবে। তবে ডান পাশের চোখটি নিরাপদ রয়েছে। এই ঘটনায় ঘটনার দিনই স্থানীয় থানায় হামলাকারীদের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন আহতের বাবা।