ষোড়শ সংশোধনী’র রায় নিয়ে আদালত পাড়ায় পক্ষে-বিপক্ষে আইনজীবীদের মিছিল ও সমাবেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় অসাংবিধানিক ও অপ্রাসঙ্গিক পর্যবেক্ষণ এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হেয় করার প্রতিবাদে সমাবেশ এবং মিছিল করেছে আওয়ামী পন্থি আইনজীবীরা। একইসাথে রায়কে স্বাগত জানিয়ে এবং আইন কমিশনের চেয়ারম্যানের অসাংবিধানিক বক্তব্যের প্রতিবাদ ও তার গ্রেফতার দাবীতে মিছিল করেছে বিএনপি পন্থি আইনজীবীরা। গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ১০ থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ এবং জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের আয়োজনে পৃথক পৃথক ভাবে পাল্টাপাল্টি কর্মসুচী পালিত হয়। তবে বিএনপি পন্থি আইনজীবীরা মিছিল নিয়ে আদালত চত্ত্বরের বাইরে বের হতে চাইলে তাতে পুলিশ বাঁধা দেয়।
পাল্টাপাল্টি কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালত চত্ত্বরে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলে জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক এ্যাড. তালুকদার মো. ইউনুস-এমপি, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল, সিনিয়র সহ-সভাপতি এ্যাড. আফজালুল করিম এবং জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজু, এ্যাড. আব্দুর রশিদ খান, এ্যাড. গোলাম মাসউদ বাবলু, বরিশাল ল’ কলেজের সাবেক জিএস এ্যাড. রফিকুল ইসলাম ঝন্টু সহ আওয়ামীপন্থি আইনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন। মিছিল শেষে জেলা আইনজীবী সমিতি কার্যালয়ের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
এর পূর্বে আদালত চত্ত্বরে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম’র ব্যানারে রায়কে স্বাগত জানিয়ে মিছিল বের করা হয়। আইনজীবী সমিতি ভবনের সামনে থেকে বের হওয়া মিছিলটি ফজলুল হক এভিনিউ সড়কে প্রবেশ করতে চাইলে তাতে বাঁধা দেয় পুলিশ। এসময় আদালতের প্রবেশ পথে অবস্থান নিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্যে দিয়ে কর্মসূচি শেষ করেন বিএনপি পন্থি আইনজীবীরা।
জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের আহ্বায়ক এ্যাড. আলী আহম্মেদ সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক সাধারন সম্পাদক এ্যাড. আবুল কালাম শাহীন, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক মোখলেছুর রহমান বাচ্চু, জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আলী হায়দার বাবুল, কোতয়ালী বিএনপি’র সভাপতি এ্যাড. এনায়েত হোসেন বাচ্চু, নাজিম উদ্দিন আহমেদ পান্না, এ্যাড. আবুল কালাম আজাদ ইমন প্রমূখ। এসময় বক্তারা ষোড়শ সংশোধনীর রায় নিয়ে অসাংবিধানিক বক্তব্য দেয়ায় আইন কমিশনের চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার ও বিচারের দাবী জানান বক্তারা।