শ্যালকের পায়ের রগ কর্তন করেছে ভগ্নিপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীর কাশিপুর এলাকায় স্ত্রী নির্যাতন মামলার স্বাক্ষী শ্যালকের পায়ের রগ কেটে দিয়েছে ক্ষমতাসীন দলের শ্রমিক নেতা। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে এ ঘটনায় ঘটে। আশংকাজনক অবস্থায় ভাই কৌশিককে (৩০) শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আহতর ভাই সাইফুল ইসলামা জানান, প্রায় ৭ বছর পূর্বে বোন হাসিনা আক্তারকে জোর করে বিয়ে করে নেতা কালাম মোল্লা। বিয়ের পর অন্ত.সত্তা বোন গর্ভপাতে রাজি না হওয়ায় নির্যাতন শুরু হয়। শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে স্বামী শ্রমিক নেতা কালাম মোল্লার বিরুদ্ধে ২০১০ সালের ৩০ জুলাই মামলা করেন। মঙ্গলবার মামলার সাক্ষী দেয়ার জন্য ভাই কৌশিক আদালতের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়।
পথিমধ্যে কালাম মোল্লা তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে কৌশিকের উপর হামলা করে। ধারালো অস্ত্র দিয়ে কালাম মোল্লা কৌশিকের বাম পায়ের রগ কেটে দেয়। তার চিৎকারে এলাকাবাসী এলে পালিয়ে যায় কালাম মোল্লা এবং তার সন্ত্রাসী বাহিনী। পরে তাকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
গত সোমবারও কালাম মোল্লা লোকজন নিয়ে বাদী স্ত্রীকে নানা ভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে।
আহত কৌশিকের অভিযোগ, ঘটনার পর থেকে কালাম মোল্লা লোকজনের মাধ্যমে হুমকি দিচ্ছে যাতে প্রশাসন কিংবা মিডিয়ার বিষয়টি না জানানো হয়। এমনকি হাসপাতাল থেকেও ছাড়পত্র দেয়ার হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে সে।