শোকের মাসে কথিত পদের বৈধতা দিতে ছাত্রলীগের নেতাদের ব্যানার, বিল বোর্ড ও পোষ্টারের রাজনীতি

রুবেল খান॥ নগরীতে ব্যানার, বিল বোর্ড এবং পোষ্টারের রাজনীতিতে মেতেছে ছাত্রলীগের নেতারা। অবৈধ ভাবে পদ পদবি হাতিয়ে নেয়া মহানগর ছাত্রলীগের কথিত নেতারা নিজেদের বৈধতা প্রমান দিতে এমন রাজনীতি শুরু করেছেন। বিশেষ করে জাতীয় শোক দিবসকে পুঁজি করে ইতোমধ্যে নগরীর বিভিন্ন স্থানে ব্যানার, পোষ্টার আর বিলবোর্ড টানিয়েছেন তারা। এটা শোকের মাসকে নিজের ভাগ্য তৈরীর একটি পন্থা বলে অভিযোগ করেছেন ছাত্রলীগের সাবেক এবং জ্যেষ্ঠ নেতারা।
সূত্রমতে, আগামী ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস। ১৯৭৫ সালের এই দিনে রাতের আধারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং কৃষক কুলের নয়ন মনি আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সহ স্বপরিবারে নৃশ্বংস ভাবে গুলি করে হত্যা করা হয়। এজন্য প্রতি বছর ১৫ই আগস্ট এই দিনটিকে জাতীয় শোক দিবস হিসেবে পালন করা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, পুরো আগস্ট মাসটিকে শোকের মাস হিসেবে পালন করছেন দেশের জনগন।
এদিকে শোকের মসে দেশের মানুষ যখন দুঃখ-কষ্টে বিভোর ঠিক তখন বঙ্গবন্ধু’র হাতে গড়া বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর অঙ্গ সংগঠন বরিশাল জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগে শুরু হয়েছে যেন উৎসব। দিবসটিকে পুঁজি করে এখানকার কতিপয় নেতা-কর্মীরা তাদের ছবি সম্বলিত ব্যানার, পোষ্টার এবং বিলবোর্ড টানিয়ে রাজনীতিতে মেতে উঠেছে। বিশেষ করে কেন্দ্রীয় কাউন্সিল থেকে পদ পদবি ডাকাতী করে বরিশালে ফেরা মহানগর ছাত্রলীগের নব্য সহ-সভাপতি এবং যুগ্ম সাধারন সম্পাদক দাবীদার কথিত নেতারাই এমন কর্মে মেতেছে। তারা তাদের ভুয়া পদ পদবি নগরবাসীর কাছে বৈধ জানান দিতে বিভিন্ন নেতাদের পাশাপাশি নিজের ছবিটিও বিশাল আকাড়ে ব্যানার, বিলবোর্ড এবং পোষ্টার বন্ধি করছেন। ইতোমধ্যে এমন ব্যানার, বিলবোর্ড আর পোষ্টারে ছেয়ে গেছে নগরীর প্রান কেন্দ্র সদর রোড সহ শহরের প্রতিটি অলিগলি।
সরেজমিনে দেখাগেছে, নগরীর চৌমাথা এলাকার বাসিন্দা এবং ছাত্রদলের সহচর জহিরুল ইসলাম রেজভী নিজেকে নগর ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি দাবী করে নগর ভবনের সামনে শোক দিবসের ব্যানার টানিয়েছেন। তার পাশাপাশি কথিত সহ-সভাপতি কাশিপুর এলাকায় ইয়াবা ব্যবসায়ী হিসেবে সু-পরিচিত রিয়াজ ভুইয়াও টানিয়েছেন ব্যানার। এতে নগর ছাত্রলীগের সভাপতি’র পাশাপাশি রয়েছে সদর আসনের এমপি’র ছবিও। কিন্তু ব্যানারের ধরন দেখে যে কেউ মনে করবেন এটা কোন শোকের ব্যানার নয়। মূলত নগরবাসীর কাছে নিজেদের পরিচয় করিয়ে দিতেই শোকের মাসে হাস্য উজ্জল এবং ফুরফুরে মেজাজের ছবি দিয়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। তবে শুধু মাত্র লেখার ক্ষেত্রে লেখা হয়েছে জাতীয় শোক দিবসের শ্রদ্ধাঞ্জলী।
শুধু রেজভী কিংবা রিয়াজ ভুঁইয়াই নয়, পোষ্টার আর ব্যানার ছাপিয়ে নিজের পরিচয় করানোর রাজনীতিতে মেতেছে কাউনিয়ার মাদক চিহ্নিত ইয়াবা সরবরাহকারী পন্টি রাব্বি, পারভেজ, বাবলু সহ আরো অন্যান্য কথিত নেতারা। শোকের মাসে মহানগর ছাত্রলীগের কথিত সহ-সভাপতি এবং যুগ্ম সম্পাদকদের এমন কর্মকান্ড দেখে ক্ষুব্ধ নগরীর সুধিজনেরাও।
এমন কর্মকান্ডের বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক জাকির হোসাইন বলেন, শোকের মাসে ব্যানার পোষ্টারের মাধ্যমে নিজেদের পরিচিত করে থাকলে তারা জঘণ্যতম অপরাধ করেছে। এরা ছাত্রলীগের কেউ হতে পারে না। বিষয়টি তারা খোঁজ খবর নিয়ে দেখবেন বলেও জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় এই নেতা।