শেবাচিমে ভর্তি পরীক্ষা দিতে এসে নিখোঁজ শিক্ষার্থী কুয়াকাটায়

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষা দিতে এসে নিখোঁজ তরুনীর সন্ধ্যান পাওয়া গেছে। ইসরাত জাহান রিফাত নামের তরুনী বর্তমানে তার প্রেমিক হাসান শেখের সাথে কুয়াকাটায় অবস্থান করছে। তরুনীর পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে বের হওয়ার পরে ঐ যুবক তাকে অপহরন করেছে।
উল্লেখ্য, পিরোজপুরের নেছারাবাদ উপজেলার শারেংকাঠি ইউনিয়নের গবিন্দগুহকাঠি গ্রামের আয়ুব আলী’র মেয়ে ইসরাত জাহান রিফাত (১৯)। গত ২৪ অক্টোবর মা ও বোনদের সাথে নিয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসে। মা বোনদের কাছ থেকে বিদায় নিয়ে পরীক্ষার হলে প্রবেশ করলেও পরে তার আর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। অতঃপর তরুনী রিফাত’র সন্ধান লাভ করেছে তার পরিবার।
রিফাত’র দুলাভাই তাজুল ইসলাম আজকের পরিবর্তনকে জানায়, তারা খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পেরেছেন রিফাতকে অপহরন করা হয়েছে। রিফাত পরীক্ষা দিয়ে বের হওয়ার সময় মেডিকেল কলেজের সামনে থেকে তাকে অপহরন করেছে মোঃ হাসান শেখ নামের এক যুবক। নেছারাবাদের সমুদয়কাঠি ইউনিয়নের সাগরকান্দা গ্রামের মোঃ নুরুল ইসলাম শেখের ছেলে হাসান প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তার শ্যালিকা রিফাতকে অপহরন করেছে বলে অভিযোগ করেছেন ঢাকায় কর্মরত দুলাভাই তাজুল ইসলাম। তিনি দাবী করেন তার শ্যালিকাকে অপহরন করে কুয়াকাটায় কোন এক হোটেলে জিম্মি করে রাখা হয়েছে। হাসানের স্বজনদের নিকট অভিযোগ দিলেও তারা কোন ব্যবস্থা গ্রহন করেনি।
এদিকে ইসরাত জাহান রিফাত’র দুলাভাই অপহরনের অভিযোগ করা হলেও প্রকৃতপক্ষে ঘটনাটি প্রেম সংক্রান্ত বলে দাবী করেছে হাসানের বন্ধুরা। তারা জানিয়েছে, হাসানের সাথে রিফাতের বেশ আগে থেকেই প্রেম চলে আসছিলো। কিন্তু রিফাতের পরিবার তা মেনে নিতে পারছিলো না। এজন্যই রিফাতের পরিকল্পনায় পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে বের হয়ে হাসানের সাথে পালিয়ে তারা দু’জন কুয়াকাটায় আশ্রয় নিয়েছে বলে জানানো হয়েছে। তবে অপহরনের অভিযোগ এনে রিফাতের বাবা হাসান ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিয়েছে বলে জানানো হয়েছে।