শেবাচিমের চিকিৎসকের বাসায় চুরির মামলায় পরিচ্ছনতা কর্মীর স্বামী গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপকের বাসায় চুরির ঘটনায় আরো একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার ভোরে আটককৃত যুবক মো. লিটন (২৮) নগরীর আমতলার মোড় এলাকার বাসিন্দা। তার স্ত্রী শেবাচিম হাসপাতালের চুক্তি ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানের পরিচ্ছন্নতা কর্মী।
কোতয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাখাওয়াত হোসেন জানান, গত ৬ জুন শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের রেসপেরটি মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. মাসুম আহম্মেদ’র ডক্টর্স কোয়ার্টারের ৪/সি নম্বর বাসায় চুরি সংঘটিত হয়। এসময় চোর চক্র বাসা থেকে প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যায়।
এদিকে চুরির ঘটনায় ডা. মাসুম আহম্মেদ বাদী হয়ে কোতয়ালী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে ১৮ জুন চুরির অভিযোগে কোয়ার্টারের নৈশ প্রহরির দায়িত্বে থাকা চতুর্থ শ্রেনীর কর্মচারী হানিফ ওরফে নয়নকে গ্রেফতার করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন। এর পর লিটনকে গ্রেফতার করা হয়েছে গতকাল।
এসআই দেলোয়ার হোসেন জানান, যে রাতে চুরির ঘটনা ঘটেছিলো সেই রাতে লিটনকে ঐ এলাকায় রহস্যজনকভাবে ঘোরা ঘুরি করতে দেখেছে স্থানীয়রা। এই কারনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করা হয়েছে।