শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের উদ্বোধন

সিদ্দিকুর রহমান ॥ সারাদেশে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে সার্ভার ও নেটওর্য়াক জটিলতার কারনে বরিশালের সাথে সরাসরি সংযুক্ত হতে পারেননি তিনি।
গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১১ টায় গণভবন হতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই ল্যাবগুলোর উদ্বোধন করা হয়। কিন্তু নগরীর আলেকান্দা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের বাস্তবায়নে বরিশাল জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সব রকমের প্রস্তুতি গ্রহন করা হলেও সার্ভার ও নেটওর্য়াক জটিলতার কারনে বরিশালের সাথে সরাসরি সংযুক্ত হতে পারেননি । যার ফলে বিটিভি থেকে সরাসরি সম্প্রচারকৃত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উদ্বোধন করা হয়েছে আলেকান্দা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ডিজিটাল ল্যাবটি।
এদিকে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য বলেন, ডিজিটাল ল্যাবের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা তথ্য প্রযুক্তিতে আরো উন্নতি অর্জন করবে। এছাড়া ডিজিটাল ল্যাবের মাধ্যমে তথ্যপ্রযুক্তি সম্পর্কে আরো অধিকতর জ্ঞান অর্জন করতে পারবে। দেশের ২ হাজার ১ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্থাপিত প্রতিটি ডিজিটাল ল্যাবে সংযুক্ত করা হয়েছে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ইন্টারনেট সংযোগ। যার ফলে এদেশের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ল্যাবগুলোতে নিরবিছিন্ন ইন্টারনেট সংযোগের ফলে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার আরও সমৃদ্ধশালী হবে। এছাড়াও শিক্ষার্থীরা ভবিষ্যতে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারে দক্ষ মানব সম্পদ উন্নয়নে কার্যকরী ভূমিকা রাখতে সম্ভব হবে বলে আশা ব্যক্ত করেন ।
১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট নিহত সকলের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে প্রধানমন্ত্রী বলেন বাঙ্গালী জাতি আজ গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় স্মরন করবে তার শ্রেষ্ঠ সন্তানকে। তিনি বলেন, ঘাতকচক্র বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তাঁর স্বপ্ন ও আদর্শের মৃত্যু ঘটাতে পারেনি। বঙ্গবন্ধুর ত্যাগ ও তিতিক্ষার দীর্ঘ সংগ্রামী জীবনাদর্শ বাঙালি জাতির অন্তরে গেথে আছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আসুন আমরা জাতির পিতাকে হারানোর শোককে শক্তিতে পরিণত করে তাঁর স্বপ্ন সোনারবাংলা প্রতিষ্ঠায় আত্মনিয়োগ করি। ক্ষুধাম্ক্তু দারিদ্র্যমুক্ত, শান্তিপূর্ণ, সমৃদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার এ সংগ্রামে আমাদের অবশ্যই জয়ী হতে হবে।
শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সদর আসনের সাংসদ জেবুন্নেচ্ছা আফরোজ, জেলা প্রশাসক ড. গাজী মোঃ সাইফুজ্জামান, জেলা পরিষদের প্রশাসক খান আলতাফ হোসেন ভুলু, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আবুল কালাম আজাদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আহসান হাবিব, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) কাজী হোসনে আরা, উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা লুৎফুন নাহার আফরোজ, প্রকৌশলী শহীদুল আলম শহীদ সহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংষ্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
অন্যদিকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ সূত্রে জানাগেছে, সারাদেশে স্কুল-কলেজগুলোতে স্থাপন করা হয়েছে ২হাজার ১টি ডিজিটাল ল্যাব। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের নামে নামকরণ করা এসব কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাবে প্রযুক্তির হালনাগাদ সব সুযোগ সুবিধা রাখা হয়েছে ।
এছাড়াও গণভবন হতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সারাদেশে একযোগে শেখ রাসেল কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৯৮ কোটি ৯৮ লাখ টাকা বাজেটের ‘শেখ রাসেল কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন’ প্রকল্প নির্ধারিত মেয়াদেই বাস্তবায়ন করা হয়। প্রকল্পে ২ হাজার ল্যাব স্থাপন করার কথা থাকলেও একটি বেশি করা হয়। এছাড়াও জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের উদ্বোধন করার জন্য সরাসরি চারটি জেলার সাথে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্তি হওয়ার মধ্যে বরিশালও ছিলো। কিন্তু সার্ভার ও নেটওর্য়াক জটিলতার কারনে বরিশালের সাথে সরাসরি সংযুক্ত হতে পারেনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রতিটি ল্যাবে আইটি সরঞ্জামের মধ্যে থাকবে ১৭টি কম্পিউটার, একটি লেজার প্রিন্টার, একটি স্ক্যানার, একটি মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর (স্ক্রিনসহ), দ্রুত গতির ইন্টারনেটের জন্য থাকবে থ্রি-জি রাউটার ও প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র।
অন্যদিকে ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাবগুলোতে থাকবে বিশ্বের প্রধান ৯টি ভাষা শেখার সুযোগ। এগুলো হচ্ছে- ইংরেজি (আমেরিকান, ব্রিটিশ ও অস্ট্রেলিয়ান), চীনা, কোরিয়ান, জাপানিজ, ফরাসি, স্প্যানিশ, জার্মান, আরবি ও রুশ।
ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাবগুলোতে বাড়তি হিসেবে থাকবে ভাষা ওপর প্রশিক্ষণ সফটওয়ার ও কনটেন্ট এবং হেড ফোন।
ডিজিটাল ল্যাবগুলো সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য প্রতিটি নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য (এমপি), জেলা প্রশাসক, উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), পৌর কাউন্সিলর, উপজেলায় নিয়োজিত আইসিটি অধিদফতরের সহকারী প্রোগ্রামার ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের সমন্বয়ে গঠিত হবে শক্তিশালী উপদেষ্টা কমিটি।
তৃণমূল পর্যায়ে আইসিটি জ্ঞান সম্প্রসারণে দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন প্রকল্পের আওতায় এসব কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন করা হয়।
এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ডিজিটাল ল্যাব উদ্ভোধনী কার্যক্রমকে মুলাদী উপজেলার আরিফ মাহমুদ ডিগ্রি কলেজের উদ্যোগে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উপস্থিতিতে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। কলেজের অধ্যক্ষ আমিনুল ইসলাম খসরুর সভাপতিত্বে এ উপলক্ষে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন, অধ্যাপক মনির হোসেন, মুহাম্মদ নেছার উদ্দিন, মোঃ জহিরুল ইসলাম, ইসরাত জাহান এ্যানী, জাহাঙ্গীর কবির, মোঃ আতিকুল ইসলাম মোল্লা, মামুন হোসেন আকন প্রমুখ। উল্লেখ্য প্রধানমন্ত্রী কলেজে ১৭টি কম্পিউটার প্রদান করেন।