শিক্ষকের ঋন কখনো শোধ করা যায় না-সোনারগা হোটেল পরিচালক আতিক

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ শিক্ষক এমন একজন গুরু, যার ঋন কখনো শোধ করা যায় না বলে মন্তব্য করেছেন দেশের পাঁচতারকা আবাসিক হোটেল প্যানপ্যাসিফিক সোনারগা’র পরিচালক আতিকুর রহমান। সদ্য প্রয়াত তার শিক্ষক’র নুরুল আলম স্মরণ সভায় প্রধান আলোচক’র বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, বাবা-মায়ের পরে আমরা একজন শিক্ষকের কাছ থেকেই আদর্শ ও নৈতিক শিক্ষা অর্জন করি। তাদের শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে সুনাম ও খ্যাতি অর্জন হয়। তাই প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে শিক্ষকদের সব সময় স্মরন করা ও তাদের স্মৃতি ধারন করা উচিত। গতকাল সোমবার বাবুগঞ্জ উপজেলার আবুল কালাম ডিগ্রী কলেজে অনুষ্ঠিত ওই স্মরন সভায় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শিক্ষকদের প্রতি শ্রদ্ধা ভক্তির দৃষ্টান্ত তুলে ধরে যুব মৈত্রির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা আতিকুর রহমান বলেন, একজন প্রধানমন্ত্রী হয়েও নিজের শিক্ষকে পায়ে হাত দিয়ে সালাম করেন। শিক্ষকের প্রতি তার শ্রদ্ধা সম্মান ও ভক্তি প্রদর্শনের দৃষ্টান্ত সকলকে ধারন করার আহবান জানিয়েছেন।
গত ৩ সেপ্টেম্বর বাবুগঞ্জের জামেনা খাতুন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সদস্য নূরুল আলম শরীফ ইন্তেকাল করেন। হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যবরনকারী ওই শিক্ষকের শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে সমাজে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করা সাবেক শিক্ষার্থীদের আয়োজনে স্মরণ সভা ও দোয়া-মোনাজাত’র অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জামেনা খাতুন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তক ছাত্র মো. নাসিম।
এছাড়া আলোচনা অনুষ্ঠানে মরহুম শিক্ষক নূরুল আলম শরীফ এর স্মৃতি চারন করে স্মরণ সভায় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযোদ্ধা রত্তন আলী শরীফ-বীর বিক্রম, জামেনা খাতুন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক ও ওয়ার্কার্স পার্টির সদস্য বজলুর রহমান মাষ্টার, যুবমৈত্রী কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শাহিন হোসেন, ছাত্রমৈত্রীর সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম সুজন প্রমূখ। এসময় বক্তারা মরহুম শিক্ষকের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে দোয়া-মোনাজাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় প্রাক্তক ছাত্র ও প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাও হোটেলের পরিচালক আতিকুর রহমান আতিককে ধণ্যবাদ জানিয়ে তার জন্য সকলের কাছে দোয়া-কামনা করেন।
স্মারণ সভায় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন- আবুল কালাম ডিগ্রী কলেজের উপাধ্যক্ষ মো. হারুন অর রশীদ, জামেনা খাতুন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. আয়নাল হোসেন, জামেনা খাতুন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র মো. মাসুম রেজা সহ মরহুমের পরিবারের স্বজন, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং মরহুমের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীরা স্মরণ সেভায় অংশগ্রহন করেন। মরহুনে স্মরণে সভা শেষে তার রুহের শান্তিকামনা করে দোয়া- মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।