শত নেতা-কর্মীর মাঝে সাদিকের কাঁধে রহমান বিশ্বাসের লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ মৃত মানুষ নিয়ে কোন রাজনীতি নেই। থাকে শুধু মনুষত্ব্য। যেখানে ঠাই মেলে না কোন হিংসা, বিদ্বেষ কিংবা প্রতিহিংসার। এমন বাস্তবতার আরো একবার প্রমান করিয়ে দিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও জননন্দিত নেতা সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। বিএনপি এবং আওয়ামী লীগের শত শত নেতা-কর্মীদের ভিড়ে আগ বাড়িয়ে তিনিই বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি বরিশালের কৃতি সন্তান মরহুম আব্দুর রহমান বিশ্বাস এর লাশবাহী খাটিয়া নিজ কাঁধে তুলে নিলেন। বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার সহ অন্যান্য বয়জ্যেষ্ঠ নেতাদের পাশে থেকে আব্দুর রহমান বিশ্বাস এর লাশ গাড়ি থেকে নামিয়ে কাধে বহন করে জিলা স্কুল মাঠে জানাযা স্থলে নিয়ে যান তিনি। সাদিক আব্দুল্লাহ’র কাধে সাবেক রাষ্ট্রপতির লাশ বহনের দৃশ্য শুধুমাত্র মানবতা আর মনুষত্ব্যকেই জাগ্রত করেনি, রাজনৈতিক অঙ্গনে নেতা-কর্মী থেকে শুরু করে সর্বস্তরের মানুষের বিবেককেও জাগিয়ে তুলেছে। আর তাই এমন দৃশ্য দেখে উপস্থিত সাধারন মানুষও সাদিক আব্দুল্লাহর প্রশংসা করেছেন।
সরেজমিনে দেখাগেছে, গতকাল সকালে বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি আব্দুর রহমান বিশ্বাস এর লাশ হেলিকপ্টার যোগে বরিশালে নিয়ে আসা হয়। বরিশাল বিমানবন্দর থেকে তার লাশ গড়ি যোগে নগরীর জিলা স্কুল মোড়ে নিয়ে আসা হয়। সেখানে লাশ পৌছা মাত্রই বিএনপি’র অন্যান্য নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি এগিয়ে আসেন মহানগর যুবলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ ও অ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার। এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার এবং সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ আব্দুর রহমান বিশ্বাসের লাশের খাটিয়া কাঁধে নিয়ে হাটা শুরু করেন। এসময় ওই স্থানে আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি’র অসংখ্য নেতা-কর্মী ছিলেন। যাদের লাশের পাশ দিয়ে হাটলেও কাধে বহনের আগ্রহ দেখা যায়নি। তার মধ্যে থেকে মজিবর রহমান সরোয়ার এবং সাদিক আব্দুল্লাহ সহ কয়েকজন সাবেক রাষ্ট্রপতির মরদেহ জিলা স্কুলের মাঠে জানাযা নামাজের স্থলে নিয়ে রাখেন। সাদিক আব্দুল্লাহ’র এমন সহাবস্থানের দৃশ্য প্রত্যক্ষকারী সকল নেতা-কর্মী ও উপস্থিত জনতাকে মুগ্ধ করেছে। তারা নির্বাক তাকিয়ে ছিলেন সাদিক আব্দুল্লাহ’র প্রতি। শোক ও ভালো লাগার অনুভুতি মিশ্র হয়ে এক অসাধারন ভাবাবেগের সৃষ্টি করে সকলের মাঝে।