লিটন বাশার ছিলেন আপোষহীন সাংবাদিক-বরিশাল ক্লিনিক এ্যান্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এ্যাসোসিয়েশন’র বিশেষ সাধারণ সভায় বক্তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বরিশাল ক্লিনিক এ্যান্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এ্যাসোসিয়েশন’র বিশেষ সাধারণ সভা, কার্যকরী পরিষদের সদস্য, দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার ব্যুরো প্রধান মরহুম লিটন বাশার’র স্মরণ সভা ও দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৫ টায় নগরীর বরিশাল ক্লাব লিঃ এর গোলাম মাওলা কনভেনশন হলে এই স্মরণ সভা ও দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বরিশাল ক্লিনিক এ্যান্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এ্যাসোসিয়েশন এর সভাপতি, বেলভিউ হসপিটাল এন্ড মেডিকেল সার্ভিসেস প্রাঃ লিঃ এর চেয়ারম্যান ও দৈনিক বরিশাল প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক কাজী মফিজুল ইসলাম।
মো. লিয়াকত আলী লিকুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারন করে বক্তব্য কালে বরিশাল ক্লিনিক এ্যান্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এ্যাসোসিয়েশন এর সভাপতি কাজী মফিজুল ইসলাম বলেন, মরহুম লিটন বাশার ছিলেন সৎ, পরিশ্রমী, স্পস্টভাষী ও সাহসী সাংবাদিক নেতা। যার ফলশ্রুতিতে স্বল্প সময়ে সে সাংবাদিক অঙ্গনে জনপ্রিয়তা অর্জনের মাধ্যমে বরিশাল প্রেসক্লাবে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। পেশাগত দক্ষতার কারণে জাতীয় দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার বরিশাল ব্যুরো প্রধান হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেছেন। সভাপতি মফিজুল ইসলাম আরও বলেন, প্রয়াত সাংবাদিক লিটন বাশার ও বাবর আলী’র অনুপ্রেরণার কারনে সে দৈনিক বরিশাল প্রতিদিন পত্রিকা প্রকাশ করতে সক্ষম হয়। এছাড়াও এই দুইজন গুণি সাংবাদিকের নিরলস পরিশ্রমের কারণে বরিশাল প্রতিদিন পত্রিকা ধীরে ধীরে পাঠকের জনপ্রিয়তা অর্জন করে।
সংগঠনের সমাজসেবা সম্পাদক, রয়েল ডায়াগনস্টিক সেন্টারের চেয়ারম্যান ও দৈনিক আজকের পরিবর্তন পত্রিকার সম্পাদক কাজী মিরাজ মাহমুদ বলেন, লিটন বাশার ছিলেন নির্ভীক ও আপোষহীন সাংবাদিক। তার লেখনিতে মানুষের দুঃখ-দুর্দশা ও সত্য ঘটনাগুলো খুঁজে পেত। লিটন বাশার অন্তরে যা ভাবতেন স্পস্টভাবে মুখের ও লেখনীর ভাষায় তা প্রকাশ করতেন।
স্মরণ সভায় দৈনিক প্রথম সকাল পত্রিকার সম্পাদক কাজী আল মামুন বলেন, লিটন বাশারের মৃত্যু হলেও সে বরিশালে অসংখ্য অনুসারী রেখে গেছেন। লিটন বাশারের আদর্শের অনুসারীদের মধ্যে হাজার বছর বেঁচে থাকবে লিটন বাশার।
এছাড়াও বক্তব্য রাখেন প্রয়াত লিটন বাশার’র পিতা অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব আব্দুল কাদের হাওলাদার। তিনি বলেন, লিটন বাশার আমার ছেলে। সে কখনো কারো ক্ষতি করতো না। যদি পারতো মানুষের উপকার করতো। সে যে ধীরে ধীরে মানুষের কাছে এত জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলো আমি তা আজ বুঝতে পেরেছি। আলোচনা সভা শেষে লিটন বাশারের রূহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া মোনাজাত করা হয়। অনুষ্ঠানে দোয়া মোনাজাত করেন আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মোঃ নুর হোসেন।
সভায় উপস্থিত ছিলেন সহ সভাপতি ডা. সেলিনা পারভীন, ডাঃ এসএম জাকির হোসেন, কোষাধ্যক্ষ ডাঃ আনোয়ার হোসেন, কার্য নির্বাহী সদস্য ডাঃ জাহাঙ্গীর আলম সেলিম, হাবিবুর রহমান, রয়েল সিটি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী আফরোজা, জাহাঙ্গীর আলম সেলিমসহ সংগঠনের সদস্য ও সম্পাদকবৃন্দ। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত এর মাধ্যমে স্মরণ সভা শুরু হয়। পরে বরিশাল সিটি মেডিকেল সার্ভিসেস প্রাঃ লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার ব্যুরো প্রধান প্রয়াত লিটন বাশার’র স্মরণে ১ মিনিট নিরবতা পালন করে সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়।