রুপাতলী থেকে ১০ রুটে সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ আট কিলোমিটার সড়কের ন্যায্য হিস্যা নিয়ে দন্দ্বে বরিশাল থেকে ঝালকাঠি জেলার সড়কের ফের বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তাই গতকাল বুধবার সকাল থেকে বরিশাল থেকে কোন বাস ঝালকাঠি, খুলনা, মঠবাড়িয়া, পাথরঘাটা, বরগুনা, পিরোজপুর, নলছিটি, ভান্ডারিয়া ও রাজাপুর রুটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়নি। গত ২ জানুয়ারী বিভাগীয় প্রশাসনের ডাকা বৈঠকে বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ না আসায় ঝালকাঠি বাস মালিক সমিতি বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়। এর ফলে তাছাড়া ঝালকাঠি থেকে পশ্চিমাঞ্চলীয় সকল রুটে বাস চলাচল স্বাভাবিক থাকলেও ঝালকাঠি’র বাস বরিশালে আসেনি। তেমনি নগরীর রুপাতলী বাস টার্মিনাল থেকে কোন বাস ঝালকাঠি জেলার সড়ক দিয়ে চলাচল করেনি। রুপাতলী থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দুরে রায়াপুরে অস্থায়ী বাস টার্মিনাল স্থাপন করে সেখান থেকেই ঝালকাঠি’র বাস চলাচল করছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে ঝালকাঠি জেলা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মিলন মাহমুদ বাচ্চু জানান, বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতি ঝালকাঠি জেলার প্রায় ৭০ কিলোমিটার সড়ক ব্যবহার করে ঝালকাঠি, খুলনা, মঠবাড়িয়া, পাথরঘাটা, বরগুনা, পিরোজপুর, নলছিটি, ভান্ডারিয়া ও রাজাপুর রুটের তাদের বাস চলাচল করছে। কিন্তু ঝালকাঠি সমিতি বরিশালের মাত্র ২ কিলোমিটার সড়ক ব্যবহার করা বরিশাল সমিতিকে ঝালকাঠি’র উপর দিয়ে ৪৬টি বাসের ট্রিপ দিতে হচ্ছে।
তিনি বলেন, বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতি আমাদের ঝালকাঠি’র নলছিটি উপজেলাধীন ৮ কিলোমিটার সড়ক ব্যবহার করে বরিশাল-কুয়াকাটা, বাউফল, বাকেরগঞ্জ, নেয়ামতি, পটুয়াখালী, মির্জাগঞ্জ সড়কে বাস চলাচ্ছে। আমরা ঝালকাঠি সমিতি ওই রুটে বাস চলাচল করতে চাইলেও তাতে বাঁধা সৃষ্টি করছে বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতি। এ নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরেই দ্বন্দ্ব চলছে।
মিলন মাহমুদ বাচ্চু বলেন, নলছিটি’র দপদপিয়া পয়েন্ট থেকে আমাদের ৮ কিলোমিটার সড়কের ন্যায্য হিস্যার দাবীতে গত ১৮ ডিসেম্বর বরিশালের বাস ঝালকাঠি রুটে চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। এমনকি এর পর দিন আট কিলোমিটার সড়কে অবরোধ সৃষ্টি করা হয়েছিল। পরে বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ে এক বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বরিশাল থেকে ঝালকাঠি সহ সকল রুটে বাস চলাচল উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। তাছাড়া ওই বৈঠকে কথা হয়েছিলো, বিষয়টি সুষ্ঠ সমাধানের জন্য ২ জানুয়ারী অপর একটি বৈঠক হবে। সে অনুযায়ী মঙ্গলবার ২ জানুয়ারী বরিশাল নগরীর সার্কিট হাউসে বৈঠকের সকল প্রস্তুতিও সম্পূন্ন করে ঝালকাঠি সমিতি। কিন্তু সেখানে বরিশাল-পটুয়াখালী মিনাব মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়নের কেউ আসেননি। তাই হতাশ হয়ে ফিরে যেতে হয় ঝালকাঠি সমিতির নেতৃবৃন্দকে। এজন্যই গতকাল বুধবার থেকে পুনরায় বরিশাল থেকে সরাসরি ঝালকাঠি, খুলনা, বাগেরহাট সহ সংশ্লিষ্ট রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।
অবশ্য মিলন মাহমুদ বাচ্চু জানিয়েছেন, যাত্রীদের যাতে ভোগান্তি নয় হয় সে জন্য আমরা রূপাতলী বাস টার্মিনাল থেকে তিন কিলোমিটার দুরে রায়াপুরে অস্থায়ী বাস টার্মিনাল স্থাপন করেছে। সেখান থেকেই ঝালকাঠি’র বাস চলাচল করছে। তাছাড়া সড়ক অনুযায়ী যাত্রী ভাড়াও কমিয়ে রাখা হচ্ছে। ওই আট কিলোমিটার সড়কের ন্যায্য হিস্যা না পাওয়া পর্যন্ত বরিশাল-ঝালকাঠি রুটে সরাসরি কোন বাস চলবে না বলেও জানিয়েছেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাওসার হোসেন শিপন বলেন, বিষয়টি সমাধানের জন্য ইতিমধ্যেই বরিশাল-১ আসনের এমপি আলহাজ্ব আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ-এমপি’র সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি বিষয়টি নিয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায়ে আলোচনা করবেন বলে জানিয়েছেন। তাছাড়া বিষয়টি নিয়ে বিভাগীয় প্রশাসনের সঙ্গেও যোগাযোগ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।