রসুলপুর চরের ৪২ পরিবার খোল আকাশের নিচে

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ উচ্চ আদালতের নির্দেশে নগরীর রসুলপুরের খাস জমিতে বাস করা ৪২ ভূমিহীন পরিবার তাদের স্থাপনা সরিয়ে নিয়েছে। গতকাল বুধবার মাথা গোঁজার একমাত্র ঠাঁই ঘর ভেঙ্গে ফেলে ভোগান্তিতে পড়েছেন তারা। আশ্রয়হীন এসব পরিবার এখন খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে। তাদের নিয়ে রাজপথে শ্লোগান নেতা বনে যাওয়া জনপ্রতিনিধি পাশে এসে না দাড়ানোয় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তারা।
বিআইডব্লিউটিএ সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল নৌ বন্দর সংলগ্ন ৯ নং ওয়ার্ডের অধিনস্ত রসুলপুর চর। এই চরটির পাশ থেকে ভেড়িবাদ নির্মান করা হবে। সেই জমিতে ভূমিহীনরা ঘর তৈরি করে বসবাস কর আসছে। কিন্তু মন্ত্রনালয় এবং উচ্চ আদালতের নির্দেশে ভূমিহীনদের উচ্ছেদ করে জমি দখল মুক্ত করতে হচ্ছে।
এদিকে উচ্ছেদের তালিকায় থাকা বেদে সম্প্রদায়ের ভূমিহীন মো. আলী হোসেন জানান, গত ১৭ জুন রসুলপুরের নদী সংলগ্ন ৪২টি পরিবারকে উ”্ছেেদর জন্য নোটিশ দিয়েছে ভূমি অফিস। আজ ২৫ জুনের মধ্যে বাড়ি ঘর নিজ দায়িত্বে সরিয়ে নেয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তাদের আবাসনের জন্য করেননি কোন ব্যবস্থা। যে কারনে বউ, শিশু-সন্তান সহ পরিবার নিয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে।
আলী হোসেন বলেন, গত প্রায় ২০ বছর ধরে আমরা রসুলপুর চরের বাসিন্দা। এখানেই আমাদের শেষ সম্বল মাথা গোজার একটু টিনের ঘর ছিলো। কিন্তু উচ্চ আদালত থেকে উচ্ছেদের জন্য নির্দেশ দিয়েছে। তাই যে টুকু সম্পদ আছে তা নষ্ট না করে নিজেরাই সরিয়ে ফেলছি। কিন্তু এর পর কোথায় গিয়ে কি ভাবে থাকব তা বলতে পারিনা। তবে বর্তমানে রসুলপুরে একটি ফাঁকা মাঠের মত রয়েছে। আপাতত সেখানেই কোন রকম ছাউনি দিয়ে বউ বাচ্চাদের নিয়ে আশ্রয় নিয়েছি।
আলী হোসেন নামের এই ভূমিহীন ব্যক্তি চরম ক্ষোভ আর হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, ভূমিহীনদের উন্নয়নে অনেক নেতাদের শ্লোগান দিতে দেখেছি। তাদের প্রয়োজনে আমাদেরকেও রাস্তায় ডেকে নিয়ে আন্দোলন করেছে। এতে আমরা প্রকৃত ভূমিহীনরা না হলেও লাভবান হয়েছেন নেতারা। তারপরও আজ আমরা যখন বিপদে পড়েছি তখন সেই ভূমিহীন নেতাদের কোন খোজ পাচ্ছি না। একবারের জন্যও তারা আমাদের খোঁজ খবর নেয়ার চেষ্টা করেনি। তাই নিজেরা উদ্যোগ নিয়ে একটি মানববন্ধন, স্মারকলিপি পেশ এবং বিভিন্ন সরকারী দপ্তর ঘেরাও করেছি। সেই কর্মসূচিতেও ভূমিহীন নেতাদের পাইনি।
আরো অভিযোগ করে বলেন, ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে আমরা ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছি। এখন সেই কাউন্সিলরও আমাদের খোঁজ রাখছে না। তাকে জানানো হলেও তিনি এ বিষয়ে কোন সমাধান না দিয়ে নিরবতা পালন করেছে। তাই আমরা এখন পুরোপুরি ভাবেই অসহায় হয়ে পড়েছি। কোথায় যাব, কার কাছে যাব বা কি করব কিছুই বুঝতে পারছি না। তাই সরকারের পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিদের কাছে পূনরবাসনেরও দাবী জানান উচ্ছেদ হওয়া ভূমিহীন পরিবারগুলোর সদস্যরা।