ময়লা ফেলে বিক্ষোভে বিসিসির দন্ডিত পরিচ্ছন্নতা কর্মী মুক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মীকে সাজা দেয়ার প্রতিবাদে সহকারী কমিশনার ভূমি এর সদর কার্যালয় ঘেরাও করে বিক্ষোভ করেছে পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টা থেকে বিকেল সোয়া ৪টা পর্যন্ত কার্যালয়ের প্রধান ফটকে ময়লা ফেলে এবং ময়লার ভ্যান ও ট্রাক দিয়ে ঘেরাও করে কয়েক’শ পরিচ্ছন্নতা কর্মী এই আন্দোলনে অংশ নেয়। অতঃপর সহকর্মীদের আন্দোলনের মুখে ভ্রাম্যমান আদালতে সাজা দেয়া পরিচ্ছন্নতা কর্মী সাদ্দাম মুক্তি পেলে শান্ত হয় তারা। এর আগে বেলা ১২টার দিকে আন্দোলন চলাকালে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র আলহাজ্ব কে.এম শহীদুল্লাহ ও পুলিশের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে এসে আন্দোলনকারীদের সাথে কথা বলে ময়লা অপসারণ করেন। কিন্তু জেলে প্রেরনকৃত পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে মুক্তি না দেয়া পর্যন্ত তারা বিক্ষোভ অব্যাহত রাখে। পরবর্তীতে বিকেল ৪ টার দিকে আটক পরিচ্ছন্নতাকর্মী সাদ্দামকে বরিশাল অতিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত থেকে জামিনে মুক্তি দিলে ঘেরাও ও বিক্ষোভ কর্মসূচী প্রত্যাহার করে নেয় পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা। বিসিসি’র পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা দীপক লাল মৃধা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
তিনি জানান, প্রতিদিন ভূমি অফিসের দক্ষিন পাশে রাস্তা সংলগ্ন এলাকায় ময়লা ফেলা ও পরিষ্কার করার কাজ করে বেশ কয়েকজন পরিচ্ছন্নতা কর্মী। সকালেও সাদ্দাম নামে এক কর্মী ওই স্থানে কাজ করতে ছিলো। এসময় বরিশাল সদর ভূমি অফিসের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. ইলিয়াসুর রহমান ঐ স্থানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। তখন সাদ্দাম নামের ঐ কর্মীকে ভূমি অফিসের সামনে ময়লা ফেলার দায়ে ১৫ দিনের জেল দেন। এছাড়া একই সময় যানজট সৃষ্টির কারনে আরো দুটি অটোরিক্সায় জরিমানা করা হয় বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।
এদিকে পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা জানান, তারা ভোররাত থেকে নগরীর ময়লা পরিস্কারের কাজ করেন। সে ধারাবাহিকতায় ভূমি অফিসের সামনে জমানো ময়লাও পরিস্কার করেন। কিন্তু এ জন্য তাদের জেলে দেয়ার ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে সাদ্দামের মুক্তি চেয়ে বিক্ষোভ করেন তারা।
অপরদিকে ভূমি অফিস সূত্রে জানাগেছে, ভূমি অফিস সংলগ্ন ওই স্থানে প্রতিনিয়ত সিটি কর্পোরেশেনের ভ্যানগাড়িগুলো ময়লা ফেলে আসছে তাদের মানা করা হলেও তা শুনছে না কেউ। তবে সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতা বিভাগের কর্মকর্তা দীপক লাল মৃধা জানান, পোর্ট রোডের বিভিন্ন স্থান থেকে ময়লা সংগ্রহ করে ওই স্থানে জমানো হয়। অফিস শুরুর আগেই আবার ঐ ময়লা পড়ে ট্রাকের মাধ্যমে অন্যত্র সরিয়ে নেয় পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা।
তিনি জানান, ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ পরিচ্ছন্ন কর্মীরা ভূমি অফিসের ভেতরেও হামলার চেষ্টা করে। এসময় পরিচ্ছন্নতা কর্মী দিপল লাল মৃধা এবং নিরাপত্তা বিভাগের সুপার নিকর চন্দ্র দাস সহ অন্যান্য কর্মকর্তারা দিন ভর ভূমি অফিসের সামনে অবস্থান নিয়ে পরিস্থিতি শান্ত রাখেন।
দীপক লাল জানান, সাদ্দামের জামিন আবেদন করা হলে ম্যাজিষ্ট্রেট তা মঞ্জুর করেন। বর্তমানে শ্রমিকরা ভূমি অফিস থেকে চলে আসে এবং কার্যালয়ের সামনের ময়লা পরিস্কার করে দেন।
এ বিষয়ে ভূমি অফিসের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ ইলিয়াসুর রহমান জানান, বিষয়টি যেহেতু ঘটে গেছে তাই কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে আপিল করা ছাড়া আর কোন পদক্ষেপ নেয়া সম্ভব নয়। বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র কে.এম শহীদুল্লাহ জানান, থানা পুলিশের উপস্থিতিতে ভূমি অফিসের সহকারী কমিশনারের সাথে বিষয়টি নিয়ে কথা হয়েছে। পরে তার পরামর্শ অনুযায়ী অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে জামিনের আবেদন করা হলে আদালত পরিচ্ছন্নতা কর্মী সাদ্দামের জামিন মঞ্জুর করেন। পরবর্তীতে সন্ধ্যা ৭টার দিকে পরিচ্ছন্নতা কর্মী সাদ্দামকে জেল গেট থেকে মুক্ত করে নিয়ে আসেন অন্যান্য কর্মীরা।