মোবাইল প্রতারক থেকে সাবধান

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীর কাউনিয়ার বাঁশের হাটখোলা এলাকার বাসিন্দা এক ভদ্র মহিলার কাছে গতকাল দুপুর ১২টায় ০১৭০৭৫৯৫২৪৮ এই নাম্বার থেকে একটি ফোন আসে। ভরাট কন্ঠে অপর প্রান্ত থেকে বলা হয়, আপনার ছেলেকে (ব্যাংক কর্মকর্তা) কিছু লোক বেদম মারধর করে পুলিশে ধরিয়ে দিয়েছে। সে ভয়ানক অপরাধ করেছে। বর্তমানে গুরুতর আহত আপনার ছেলেকে আমরা উদ্ধার করে বটতলা পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে এসেছি। কিছুক্ষণের মধ্যে তাকে কোতয়ালি থানায় চালান করা হবে। তবে আধা ঘন্টার মধ্যে যদি বিকাশে ২৫ হাজার টাকা পাঠানো যায় তাহলে আপনাদের হাতে ছেলেকে তুলে দেয়া হবে। তাৎক্ষণিক এই ফোনে কিংকর্তব্যবিমূঢ় মা তার বড় ছেলেকে দ্রুত ২৫ হাজার টাকা ব্যাংক থেকে তুলে বিকাশ করার জন্য বলে। এরমধ্যে ঐ নাম্বার থেকে তাড়া দেয়া হয়, ‘দ্রুত টাকা দিন, না হলে চালান দেয়া হবে।’ এই ঘটনার কিছু সময়ের মধ্যেই ভদ্র মহিলার এক নিকটাত্মীয় দ্রুত বটতলা পুলিশ ফাঁড়িতে গিয়ে জানতে পারেন যে, এই নামে কেউ আটক হয়নি বা কাউকে থানায় নিয়ে আসা হয়নি। দ্রুত ঐ ব্যাংক কর্মকর্তাকে ফোন করা হলে তিনি ব্যাংকে আছেন এবং নিরাপদে আছেন বলে জানান। ততক্ষণে তারা বুঝতে পারে এটি একটি প্রতারক চক্রের কাজ। মুহুর্তেই যেই নাম্বারটি থেকে ফোন এসেছিল সেটি বন্ধ হয়ে যায়। গা ঢাকা দেয় প্রতারক চক্র।
এভাবে মোবাইলে নতুন নতুন প্রতারনা ফাঁদ পেতে বিকাশের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে একটি প্রতারক চক্র। ইতিমধ্যে মেট্রো ও জেলা ডিবি পুলিশ এসব প্রতারক চক্রের সদস্যদের গ্রেফতার করেছে। তারপরও থেমে নেই তাদের প্রতারণা। প্রতিনিয়ত নতুন নতুন প্রতারনার ফাঁদ পেতে মোবাইল ব্যবহারকারীদের ওই ফাঁদে ফেলছেন। মেট্রো ডিবি পুলিশের সহকারী কমিশনার সাখাওয়াত হোসেন জানিয়েছেন, মোবাইলে অপরিচিত কেউ কল দিলে বিষয়টি যাচাই-বাছাই করে তারপর সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত। আমরাও এসব প্রতারক চক্রের সদস্যকে আটক করতে কাজ করছি। বিষয়টি কোতয়ালী পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।