মেহেন্দিগঞ্জে হ্যান্ডকাপ পরিহিত আসামি ছিনতাই

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলায় স্কুল ছাত্রী উত্যক্তকারী আ’লীগ নেতার ক্যাডারকে পুলিশের উপর হামলা করে ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে। গতকাল রোববার এই ঘটনার সময় স্থানীয় এক সাংবাদিককে মারধর করে তার ক্যামেরা ছিনিয়ে নিয়েছে  ক্যাডাররা। ছিনিয়ে নেয়া ক্যাডার পিচ্ছি সবুজ মেহেন্দেীগঞ্জের উলানিয়া ইউপির লক্ষীপুর গ্রামের মৃত বাসেদ আলীর ছেলে।
ওসি উজ্জল কুমার দে জানান, সুবজ লক্ষীপুর গ্রামের এক স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করে। সেই ছাত্রী বৃহস্পতিবার বোনের সাথে সংলগ্ন হিজলা উপজেলার আলীগঞ্জ বাজারের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। সবুজ তাদের পথরোধ করে উত্যক্ত শুরু করে। তখন তার বোন প্রতিবাদ করলে তাকে মারধর করে। এই সময় স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক অপহরনের চেষ্টা করে। এই সময় ইউপির গ্রাম পুলিশ তাদের উদ্ধার করে। এই ঘটনায় থানার এসআই হাবিবুর রহমান সকাল সাড়ে দশটার দিকে গ্রাম থেকে সবুজকে আটক করে। এই খবর পেয়ে তার রাজনৈতিক গুরু পাশের হিজলা উপজেলার ধূলখোলা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ও আ’লীগ সভাপতি জসিমউদ্দিন তাকে ছাড়িয়ে রাখতে আসে। কিন্তু এসআই হাবিব ছেড়ে না দিয়ে তাকে নিয়ে রওনা হয়। তখন সে এসআই হাবিবের হাতে কামড় দিয়ে দৌড় দেয়। তাকে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ পিছু ধাওয়া করলে সভাপতি জসিম উদ্দিনের নেতৃত্বে ক্যাডাররা পুলিশকে বাধা দেয়। এই সুযোগে সে পালিয়ে গেছে বলে জানান ওসি।
তিনি আরো বলেন, এই সকল দৃশ্য ধারণ করে স্থানীয় সাংবাদিক সঞ্জয় গুহ। ক্যাডাররা তাকে মারধর করে ক্যামেরা ছিনিয়ে নিয়েছে। এ ঘটনায় মামলা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি।