মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকদের রায় রিভিউ করার জামায়াতের হরতাল পালনের আহবান

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যুদ্ধাপরাধী জামায়াত নেতা দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর রায় রিভিউ করার জন্য সরকারে প্রতি আহ্বান জানিয়েছে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এছাড়া রায় প্রত্যাখান করে এবং গনজাগরন মঞ্চে পুলিশের হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ছাত্র ইউনিয়ন ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট। গতকাল বুধবার রায় ঘোষনার পূর্ব থেকে সাংস্কৃতিক সংগঠন সমম্বয় পরিষদ, সেক্টর কমান্ডারর্স ফোরাম ও ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটির নেতৃবৃন্দ নগরীর অশ্বিনী কুমার হলের সামনে অবস্থান নেয়। আনন্দ মিছিল করার জন্য তারা সেখানে উপস্থিত হলেও রায় ঘোষণার পর নেতৃবৃন্দ ক্ষুদ্ধ হয়েছে। এই কারনে তারা মিছিল থেকে বিরত থাকেন। নেতৃবৃন্দ সাঈদীর রায় নিয়ে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়ায় সাংস্কৃতিক সংগঠন সমম্বয় পরিষদের সাবেক সভাপতি সৈয়দ দুলাল বলেন, পর্যাপ্ত স্বাক্ষ্য প্রমান থাকা সত্বেও রাজাকার দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর ফাঁসির আদেশ বহাল না থাকায় তারা হতাশ হয়েছেন।  একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির জেলা সাধারন সম্পাদক শান্তি দাস আদালতের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, এ রায় তাদের হতাশ করেছে। তারা রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ পিটিশন করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।
এদিকে রায় প্রত্যাক্ষান ও ঢাকায় শাহবাগ গণজাগরন মঞ্চে পুলিশী হামলার প্রতিবাদে বরিশালে যৌথ বিক্ষোভ মিছিল করেছে ছাত্র ইউনিয়ন ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট। বেলা সাড়ে ১২টায় নগরীর অশ্বিনী কুমার হলের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। তারা দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর ফাঁসির দাবী জানিয়ে শ্লোগান দেয়।
অপরদিকে, প্রতিবাদে নগরীতে ঝটিকা মিছিল করেছে মহানগর জামায়ত ও শিবিরের নেতাকর্মীরা। বেলা সাড়ে ৩টার দিকে নগরীর সিঅ্যান্ডবি রোড কাজিপাড়া এলাকা থেকে এই ঝটিকা মিছিল বের করা হয়। বরিশাল মহানগর শাখা শিবিরের সভাপতি আহম্মেদ শিহাবের নেতৃত্বে মিছিলে অংশগ্রহনকারীরা আপিল বিভাগের এ রায়কে প্রহসনে রায় উল্লেখ করে নানা শ্লোগান দেয়। একই সাথে রায়ের প্রতিবাদে জামায়াতের ডাকা বৃহস্পতিবার থেকে ৪৮ ঘন্টা হরতাল পালনের জন্য নগরবাসীকে আহবান জানায় নেতাকর্মীরা। পরে মিছিলটি ঢাকা-বরিশাল মহাসড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বৈদ্যপাড়া হয়ে কলেজ এভিনিউ এলাকায় গিয়ে অংশগ্রহনকারীরা যে যেভাবে পেরেছে সটকে পড়েছে।