মাদ্রাসা ছাত্রীর গর্ভপাতে প্রভাষকসহ দুইজনের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ গৌরনদীতে মাদ্রাসা ছাত্রীর গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগে প্রভাষক সহ ২ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার ওই ছাত্রী নিজে বাদী হয়ে নারী ও শিশু অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল মামলা করেন। আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক মোঃ আনোয়ারুল হক মামলাটি সংশ্লিষ্ট থানার ওসিকে তদন্ত সহ ভিকটিমের মেডিকেল রিপোর্ট জমা দেয়ার নির্দেশ দেন। অভিযুক্তরা হলো, কুষ্টিয়া নিশ্চিতবাড়িয়ার বাসিন্দা নজরুল ইসলামের ছেলে এমডি জাকারিয়া হোসেন লিমন ও গৌরনদী বাঘমারা গ্রামের বাসিন্দা মজিদ মৃধার ছেলে মোঃ শাহাবুদ্দিন। ২ জনেই বর্তমানে গৌরনদীর চরগাধাতলীর বাসিন্দা। মামলা সূত্রে জানাগেছে, লিমন গৌরনদীর বার্থী ডিগ্রী কলেজের আইসিটি প্রভাষক। ভিকটিম গাউছিয়া আবিদিয়া সুন্নিয়া আলীম মাদ্রাসার আলীম পরিক্ষার্থী। ভিকটিমসহ কয়েকজন ওই প্রভাষকের বাড়িতে কম্পিউটার বিষয়ের জন্য প্রাইভেট পড়তে যায়। মাসে ৩/৪ দিন প্রাইভেট পড়তে না যাওয়ায় প্রভাষক ভিকটিমকে ১৬ ডিসেম্বর পড়তে যাওয়ার জন্য বলে। ওই তারিখে সকালে পড়তে গেলে অন্যকেউ না থাকায় প্রভাষক লিমন তাকে ধর্ষক করে এবং কাউকে কিছু না জানালে বিয়ের আশ্বাস দেয়। পরবর্তীতে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে গত ১ এপ্রিল পর্যন্ত একাধিকবার ধর্ষন করে। এতে ওই ছাত্রী গর্ভবতী হয়ে পড়লে শাহবুদ্দিনের সহযোগিতায় তার গর্ভপাত ঘটায়। এ ঘটনা ছাত্রী তার পরিবারকে জানালে লিমন তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে। এ ঘটনায় আদালতে মামলা করলে বিচারক ওই আদেশ দেন।