মন্দির ভাংচুরের অভিযোগে আটক ৭ জনকে জেলে প্রেরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ উজিরপুর পূর্ব হারতা মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুরের মামলায় অভিযুক্ত ৭ জনকে জেলে পাঠিয়েছে আদালত। গ্রেফতারের পর গতকাল মঙ্গলবার অভিযুক্তদের অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় আদালতের বিচারক মোঃ শিহাবুল ইসলাম তাদের জেলে প্রেরণের নির্দেশ দেন। জেলে যাওয়া অভিযুক্তরা হলো, বানারীপাড়া সৈয়দ কাঠির বাসিন্দা নাজেম আলী মৃধার ছেলে মোঃ মেহেদী হাসান ওরফে ইয়ার হোসেন, সরোয়ার মৃধার ছেলে সচিব মৃধা, হোসেন মৃধার ছেলে বদিউল ইসলাম, শাহ আলম শেখের ছেলে মাসুদ শেখ, আলমগীর হাওলাদারের ছেলে মিরাজ হাওলাদার, নুরুল ইসলাম ফকিরের ছেলে মোঃ হাফিজ ইসলাম ফকিরের ছেলে মোঃ হাফিজ ফকির ও সুখরঞ্জন সরকারের ছেলে সুখদেব সরকার ওরফে শুভ্র সরকার। আদালত সূত্র জানায়, পূজা উদযাপন উপলক্ষে মন্দিরের সামনে দাড়িয়ে টাকা তুলছিল বাসুদেব রায়সহ কয়েকজন। এ সময় মেহেদির কাছে সাহায্য চাইলে টাকা না দেয়ায় কথা কাটাকাটি হয়। এর জেরে সোমবার বিকেলে অভিযুক্তরা মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুর করে। এ ঘটনায় মন্দিরের সভাপতি উত্তম বিশ^াস বাদি হয়ে উল্লেখিতরা সহ ৭/৮ জনকে অভিযুক্ত করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগ মামলা করে।