মঈন তুষারের টর্চার সেল এখন বিএম কলেজের মুসলিম হল

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ বিএম কলেজে শিক্ষকের রুমে আটকে বহিরাগতদের নিয়ে তিন ছাত্রকে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে অবৈধ কর্মপরিষদের সহ-সভাপতি মঈন তুষার’র বিরুদ্ধে। গতকাল শুক্রবার রাতে ক্যাম্পাসের মুসলিম (ডিগ্রি) হলে এই ঘটনা ঘটে। তুষারের নির্যাতনের শিকার হলের আবাসিক ছাত্ররা হলো- কবির, মাজেদ ও বাপ্পি।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিএম কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র কবির বিএম কলেজের সামনে তালভিটা গলিতে চায়ের দোকানে যায়। এসময় মঈন তুষারের বহিরাগত সন্ত্রাসী বাহিনীর অন্যতম সদস্য সাউথ, রাকিব, রায়হান ও হাসান সাহ অন্যরা মিলে কবিরকে ব্যাপক মারধর করে। পরবর্তীতে বিষয়টি নিয়ে তুষার সমর্থকদের মাজেদের সাথে কবিরের বিরোধ হয়।
বিষয়টি জানতে পেরে বিএম কলেজের কথিত ভিপি ও ছাত্রত্তহীন ছাত্রলীগ নেতা মঈন তুষার’র নেতৃত্বে মুন্না এবং বহিরাগত নাজিরের পুল এলাকার বিপ্লব সহ বেশ কয়েকজন মিলে মোটর সাইকেল শোডাইন দিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে। এসময় তারা মুসলিম হলের হল সুপারের কক্ষে আটকে রেখে মাজেদ, কবির ও বাপ্পিকে এলোপাথারী পিটিয়ে আহত করে। আহতদের চিকিৎসার প্রয়োজন হলেও তুষারের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বাহিরে প্রকাশ হবে তাদেরকে হলের বাইরে বের হতে দেয়া হয়নি বলেও অভিযোগ করা হয়েছে।
এদিকে উল্লেখিত বিষয় নিয়ে তুষারের হামলার সূত্রপাত হলেও মুসলিম হলে ছাত্রদের বড় একটি অংশের অভিযোগ আধিপত্র বিস্তারকে কেন্দ্র করেই এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। তাদের দেয়া তথ্য মতে, যেসব ছাত্রের মারধর করা হয়েছে তাদের বাড়ি বাকেরগঞ্জ। ইদানিং ঐসব ছাত্ররা মঈন তুষারের ডাকে সাড়া দিচ্ছিল না। ঐসব ছাত্রদের ডেকে না পেয়ে তুষার তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে ছাত্রদের রুমের মধ্যে আটকে রেখে নির্যাতন করেছে বলে অভিযোগ হলের অন্যান্য ছাত্রদের।
এ বিষয়ে মঈন তুষারের সাথে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।