বিসিসি’র ভারপ্রাপ্ত মেয়রের অভিযান ॥ পরিচ্ছন্ন কর্মীদের পোষাক ব্যবহার ও আবর্জনা সরানোর পরে ব্লিচিং পাউডার ব্যবহারে কঠোর নির্দেশ

পরিচ্ছন্ন কর্মীদের পোষাক ব্যবহার ও আবর্জনা পরিস্কারের পর ভালো মানের ব্লিচিং পাউডার ব্যবহারে কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র আলহাজ্ব কেএম শহীদুল্লাহ। তিনি মঙ্গলবার প্রত্যুষে নগরীর পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে পরিদর্শনে বের হন। এসময় ভারপ্রাপ্ত মেয়র মেয়র আলহাজ্জ কেএম শহীদুল্লাহ পরিচ্ছন্ন কর্মীদের পোষাক দেয়া সত্ত্বেও তা ব্যবহার না করায় ক্ষুব্ধ হন। তিনি দাঁড়িয়ে থেকে পরিচ্ছন্ন কর্মীদের পোষাক পড়তে বাধ্য করেন এবং নির্দেশ দেন যে কর্মী পোষাক পড়বে তার বেতন কর্তন সহ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহনের। ভারপ্রাপ্ত মেয়র ময়লা-আবর্জনা পরিস্কারের পর উক্ত স্থানে ব্লিচিং পাউডার না দেয়ায় কর্মীদের ভৎসনা করেন। ভালো মানের ব্লিচিং পাউডার সরবরাহের জন্য স্টোর কর্মকর্তা আলমগীর হোসেনকে নির্দেশ দেন। ভারপ্রাপ্ত মেয়র বলেন নগর পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কোনো প্রকার আপোষ করা হবে না। গতকাল প্রত্যুষে ভারপ্রাপ্ত মেয়র নগরীর সদর রোড, বটতলা, লঞ্চঘাট, সাগরদী, শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সড়ক সহ ফজলুল হক এভিনিউ, গীর্জা মহল্লা, ফলপট্টি, চক বাজার, লঞ্চ ঘাট এলাকা পরিদর্শন করেন। তিনি এসব এলাকার বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে ময়লা আবর্জনা রাস্তায় বা ড্রেনে না ফেলে নির্দিষ্ট ডাস্টবিন অথবা জমা করে পরিচ্ছন্ন কর্মীদের কাছে দেয়ার পরামর্শ দেন।

এছাড়াও ভারপ্রাপ্ত মেয়র নগরী জুড়ে পাবলিক হেলথ্রে পানির পাইপের কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। সেখানে কাজের নি¤œমান দেখে অসন্তোষ প্রকাশ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা দিপক লাল মৃধা, নির্বাহী প্রকৌশলী (পানি) মনিরুল ইসলাম স্বপন, সহকারী পরিচ্চন্নতা কর্মকর্তা ইউসুফ আলী, মাহবুব আলম, পরিচ্ছন্নতা পরিদর্শক রেজাউল করিম, শফিকুল আজম, মাহবুব আলম তালুকদার প্রমুখ।