বিসিসি’র ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৪’শ ৪৪ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা

রুবেল খান ॥ নতুন করে কোন প্রকার করারোপ ছাড়াই বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ২০১৬-১৭ অর্ধ বছরে ৪’শ ৪৪ কোটি ১০ লাখ ৫৮ হাজার ৭৬৫ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। একই সঙ্গে গত অর্থ বছরে ঘোষিত বাজেটের সংশোধিত ১’শ ৮২ কোটি ৭৪ লাখ ৫০ হাজার ৬’শ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়। গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় সিটি মেয়র মো. আহসান হাবিব কামাল এক অনুষ্ঠানিকভাবে বিসিসি’র চলতি অর্থ বছরের সব থেকে বিশালাকারের বাজেট ঘোষণা করেন। এ নিয়ে মেয়র আহসান হাবিব কামাল বর্তমান সিটি পরিষদের তৃতীয় এবং সিটি ও পৌরসভা মিলিয়ে ব্যক্তিগত ভাবে ১৫ তম বাজেট ঘোষাণা করলেন। তবে গতকাল বুধবার ঘোষিত হওয়া বাজেট বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ১২ তম এবং সর্বোচ্চ বাজেট। এর পূর্বে ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে ৪২৩ কোটি ২১ লাখ ৬৪ হাজার ৫৫৬ টাকার বাজেট ঘোষণা করেছিলেন সিটি মেয়র আহসান হাবিব কামাল।এদিকে উন্নয়ন এবং ব্যয় নির্ভরশীল এই বাজেটে পূর্বের গৃহীত প্রকল্পের পাশাপাশি আরো ৮টি বিশেষ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে নগরীর বর্ধিত এলাকার উন্নয়নে তিন অঞ্চল ভিত্তিক নানা মুখি পদক্ষেপ গ্রহনের বিষয় উল্লেখ রয়েছে প্রস্তাবিত বাজেটে। প্রস্তাবিত বাজেট বিভিন্ন বিদেশী দাতা সংস্থার অনুদান, নিজস্ব আয় এবং সরকারি বরাদ্দের উপর ভিত্তি করে করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মেয়র আহসান হাবিব কামাল।
তিনি বলেন, ৫৮ বর্গ কিলোমিটার বরিশাল নগরীতে ইতিপূর্বে নানা মুখি উন্নয়ন কর্মকান্ড সম্পাদন করা হয়েছে। বর্তমানে আরো বেশ কিছু উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত রয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে আধুনিক বরিশাল বঙ্গবন্ধু অডিটরিয়াম, ৭ তলা বিশিষ্ট সিটি সুপার মার্কেট, হাতেম আলী কলেজ সংলগ্নে ১৫ তলা বিশিষ্ট মার্কেট ভবন, শহর রক্ষা বাঁধ, খাল খনন ও পূণরুদ্ধার, নগরীতে তিনটি সিটি গেট নির্মান প্রভৃতি।
এর বাইরে আরো ৮টি প্রকল্প অনুমোদনের জন্য প্রস্তাবনায় আনা হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে সহজ ও দ্রুত যাতায়াতের লক্ষ্যে আরসিসি ও সিসি রাস্তা নির্মাণ প্রকল্প, জলাবদ্ধতা নিরসন কল্পে ড্রেন নির্মাণ, গড়িয়ারপাড় কেন্দ্রিয় বাস টার্মিনাল নির্মাণ, নতুন নগর ভবন নির্মান, সড়ক বাতি স্থাপনা সহ যানবাহন ও যন্ত্রপাতি সংগ্রহ প্রকল্প, পানি সরবরাহ লাইন স্থাপন, কেএফডব্লিউ এর অর্থায়নে ১৩০ কোটি টাকা অর্থায়নে উন্নয়ন মূলক প্রকল্প ডিপিপি প্রস্তাব করে অনুমোদনের জন্য মন্ত্রণালয়ে দাখিল করা হয়েছে। এ বিষয়ে ইতিমধ্যে জার্মান ব্যাংক এর সাথে চুক্তি সম্পন্ন করেছেন মেয়র আহসান হাবিব কামাল। এছাড়া চলতি অর্থ বছরের মধ্যে নগরীতে বৃদ্ধাশ্রম, কর্মজীবী মহিলা হোষ্টেল ও প্রতিবন্ধী ফাউন্ডেশন নির্মান প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। এছাড়া নগরীর বর্ধিত এলাকা তিনটি অঞ্চলে বিভক্ত করে ৩৬০ কোটি টাকার প্রকল্প প্রস্তুত করা হয়েছে। ট্রাক টার্মিনাল নির্মানের লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই জমি অধিগ্রহনের জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে ২৫ কোটি টাকা হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন সিটি মেয়র আহসান হাবিব কামাল।
এছাড়াও নগরীর বিবির পুকুরে মিউজিক্যাল ফোয়ারা স্থাপন, পার্ক ও ভ্রাম্যমান স্পটের আধুনিকায়ন করার প্রস্তাবনাও রয়েছে নতুন বাজেটে। সর্বোপরি ঘোষিত বাজেটে যে টাকা প্রস্তাব করা হয়েছে তার মধ্যে ৩’শ ২৫ কোটি টাকা বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে ব্যয় নির্ধারন করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে নগরীতে নগরীর প্রায় ৭১ দশমিক ৫৬ কিলোমিটার বিটুমিনাস কার্পেটিং রাস্তা নির্মান/পুণঃনির্মান, ৮ দশমিক ৩৪ কিলোমিটার সিসি রাস্তা, ১৫ দশমিক ২১ কিলোমিটার পাকা ড্রেন, ১১টি বক্স কালভার্ট, ১৫টি ক্রস ড্রেন নির্মান কাজ সমাপ্ত করা হয়েছে।
এছাড়া কালিজিরা বাজার থেকে চৌপাশা ব্রিজ পর্যন্ত নদী ভাঙ্গন প্রতিরক্ষা বাঁধ, চাঁদমারী থেকে ধান গবেষনা সড়ক পর্যন্ত শহর রক্ষা বাঁধ কাম বাইপাস সড়ক নির্মান কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।
এর পাশাপাশি সদর রোড, নজরুল ইসলাম সড়ক, বিসিক রোড, পলাশপুর প্রধান সড়ক, নিউ সদর ঘাট সড়ক, হাটখোলা সড়ক, ধান গবেষনা সড়ক, ঈশা খাঁ সড়ক, তিতুমীর সড়ক সহ প্রায় ২৮টি রাস্তা এবং জলাবদ্ধতা নিরসন কল্পে প্রায় ১০টি পাকা ড্রেন নির্মান সহ বিভিন্ন অবকাঠামো ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হয়েছে।
এদিকে নতুন প্রস্তাবিত বাজেটে সিটি কর্পোরেশনের নিজস্ব বিভিন্ন খাত থেকে আয় দেখানো হয়েছে ১’শ ১৮ কোটি ৯৫ লাখ ৫৮ হাজার ৭৬৫ টাকা। সরকারি সাহায্য এবং বিভিন্ন দাতা সংস্থা থেকে সম্ভাব্য অনুদান ধরা হয়েছে ৩’শ২৫ কোটি ৫ লাখ টাকা।
অপর দিকে বাজেট পূর্ব সময়ে ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের নিজস্ব আয়-ব্যয়ের হিসেব তুলে ধরা হয়। সেখানে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের আয় হয়েছে ৩৩ কোটি ২৯ লাখ ৪১ হাজার ৭৫০ টাকা আর ব্যয় হয়েছে ৪২ কোটি ২৩ লাখ ১১ হাজার ৩৩২ টাকা। বাকী অর্থ সরকারি সাহায্য আর বিভিন্ন দাতা সংস্থা থেকে প্রাপ্ত অর্থ থেকে ব্যয় করা হয়েছে বলে বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে জানিয়েছেন বিসিসি’র অর্থ ও ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি এবং সাবেক দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র আলহাজ্ব আলতাফ মাহমুদ সিকদার।
বিসিসি’র ১৫ তম বাজেট ঘোষনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিসিসি’র প্যানেল মেয়র-১ আলহাজ্ব একেএম শহিদুল্লাহ, প্যানেল মেয়র-২ মোশারেফ আলী খান বাদশা, প্যানেল মেয়র-৩ শরিফ তাসলিমা কালাম পলি, বিসিসি’র নির্বাহী ম্যাজেষ্ট্রেট এবং অতিরিক্ত দায়িত্ব প্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইমতিয়াজ মাহমুদ জুয়েল, বাজেট কাম হিসব রক্ষণ কর্মকর্তা মো. মশিউর রহমান সহ কর্পোরেশনের সকল কাউন্সিলর, কর্মকর্তা, সাংবাদিক এবং সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য ২০১৫-১৬ ইং অর্থ বছরের ৪২৩ কোটি ২১ লাখ ৬৪ হাজার ৫৫৬ টাকা, ২০১৪-১৫ অর্থ বছরে ৪০৭ কোটি ৮৮ লাখ ৯৪ হাজার ৯৭৫ টাকা ও ২০১৩-১৪ অর্থ বছরের ৩৮১ কোটি ১৬ লাখ ১০ হাজার ৪’শ ১৩ টাকার বাজেট ঘোষনা করা হয়েছিলো।