বিএনপি’র সদস্য সংগ্রহ অভিযান উদ্বোধনে আসছেন মির্জা ফখরুল

রুবেল খান ॥ বরিশালের জেলা ও মহানগর বিএনপি’র সদস্য সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন করতে আসছেন মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীর। দুইদিন ব্যাপি এ অভিযান শুরু হবে আগামী ২৫ জুলাই। ওই দিন থেকে কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুযায়ী সদস্য সংগ্রহ করবে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। কেন্দ্র থেকে জেলা, মহানগর, ওয়ার্ড, উপজেলা এবং ইউনিয়ন বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে করা কমিটি সদস্য সংগ্রহ অভিযান পরিচালনা করবে। কেন্দ্র করা কমিটির তালিকা পাঠানো হয়েছে। বরিশাল মহানগর বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার জিয়া জানান, ২৫ ও ২৬ জুলাই জেলা এবং মহানগর পর্যায় সদস্য সংগ্রহ অভিযান হবে। আগামী ২৫ জুলাই অভিযানের উদ্বোধন করতে নগরীতে আসছেন বিএনপি’র মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার আগমন ও সদস্য সংগ্রহ অভিযান সফল করতে দফায় দফায় করা হচ্ছে প্রস্তুতি সভা হয়েছে।

তিনি বলেন, কেন্দ্রের দিক নির্দেশনা অনুযায়ী বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ৩০টি ওয়ার্ডের প্রত্যেকটি ওয়ার্ড থেকে সর্বনি¤œ এক হাজার করে মোট ৩০ হাজার সদস্য সংগ্রহ’র লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করে দেয়া হয়েছে। তবে আমাদের লক্ষ্য প্রত্যেকটি ওয়ার্ড থেকে দেড় থেকে দুই হাজার করে সদস্য সংগ্রহ করা।

জিয়াউদ্দিন সিকদার বলেন, আগামী ২৫ জুলাই সদর রোডের অশ্বিনী কুমার হলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে। মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর মহানগর বিএনপি’র সদস্য সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন করবেন। তাই আজ সোমবার এ নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে প্রস্তুতি সভার আয়োজন করেছে মহানগর বিএনপি।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর’র বরিশাল আগমনকে ঘিরে দফায় দফায় প্রস্তুতি সভা করেছে বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপি। দক্ষিন জেলা সভাপতি এবায়দুল হক চান বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমরা দুই দফায় প্রস্তুতি সভা করেছি। সদস্য অভিযানের লক্ষ্য অর্জন এবং কেন্দ্রীয় নেতার বরিশাল আগমন সাফল্যমন্ডিত করতে কাজ করছেন নেতৃবৃন্দ।

এবায়েদুল হক চান বলেন, আগামী ২৬ জুলাই দক্ষিণ জেলার সদস্য সংগ্রহ অভিযানেরও উদ্বোধন করবেন মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তবে এখন পর্যন্ত উদ্বোধনের স্থান নির্ধারন হয়নি। উদ্বোধনের পর থেকে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে দক্ষিন জেলার আওতাধীন ৮টি ইউনিট তথা ৫টি উপজেলা এবং ৩টি পৌরসভা এলাকা থেকে সদস্য সংগ্রহ করা হবে।

তিনি বলেন, কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিটি ইউনিয়ন ও পৌরসভার ওয়ার্ড পর্যায় থেকে ফরম পুরনের মাধ্যমে সদস্য সংগ্রহ করবে বিএনপি। ইউনিয়ন পর্যায়ের প্রত্যেকটি ওয়ার্ড থেকে সর্বনি¤œ ২শ এবং পৌরসভার ওয়ার্ড পর্যায় থেকে সর্বনি¤œ ৩শ’ করে সদস্য সংগ্রহ বাধ্যতামুলক করা হয়েছে। তবে এর বেশি সদস্য সংগ্রহ করতে বাঁধা না থাকলেও নির্ধারিত সংখ্যার কম সদস্য সংগ্রহ করা যাবে না।

অপরদিকে উত্তর জেলা বিএনপি’র সভাপতি ও সাবেক এমপি মেজাহ উদ্দিন ফরহাদ বলেন, একই নিয়মে উত্তর জেলার আওতাধীন ৫টি থানা এবং ৩টি পৌরসভার ওয়ার্ড পর্যায় থেকে সদস্য সংগ্রহ করা হবে। এজন্য তাদের কমিটি কাজ চালিয়ে যাচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটিতে বরিশাল বিভাগের দায়িত্বে থাকা সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. বিলকিছ আক্তার জাহান শিরিন বলেন, সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রমকে ঘিরে স্থানীয় পর্যায়ে কেন্দ্র থেকে পৃথক কমিটি করে দেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই কমিটিগুলো স্ব স্ব ইউনিটের সভাপতি-সম্পাদক বরাবরে পৌছেছে। এই কমিটি শুধুমাত্র সদস্য সংগ্রহের বিষয়টিই দেখবেন না তারা স্থানীয় পর্যায়ে নির্বাচন কমিশনের কার্যক্রমও মনিটরিং করবেন।

তিনি বলেন, মহানগর, জেলা, উপজেলা, পৌরসভা এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে এসব কমিটি করা হয়েছে। ইউনিয়ন কমিটির কার্যক্রম মনিটরিং করবে থানা কমিটি। আবার থানা ও পৌর সভার কমিটি মনিটরিং করবে জেলা কমিটি। এছাড়া মহানগরীর ওয়ার্ড পর্যায়ে যে কমিটি গঠন করা হয়েছে তা মনিটরিং করবে মহানগর কমিটি। প্রত্যেকটি ইউনিয়ন, থানা, পৌরসভা এবং জেলা কমিটির সভাপতি-সাধারন সম্পাদকদের সমন্বয়ে এই কমিটি গঠন হয়েছে। এতে ওয়ার্ড পর্যায়ের বিএনপি’র সভাপতি-সম্পাদক এবং সহযোগী সংগঠনের অন্যান্য ইউনিটের সভাপতি-সম্পাদকগন কেন্দ্র থেকে গঠন করে দেয়া কমিটির সদস্য হিসেবে রয়েছেন। এদের মাধ্যমেই সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম পরিচালিত হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।