বাসের ঈদ সার্ভিস শুরু ১৬ জুলাই

রুবেল খান॥ আগামী ১৬ জুলাই থেকে বরিশাল-ঢাকা সড়ক পথে চলাচল শুরু করবে ঈদের বিশেষ সেবা। সেই সাথে দক্ষিণাঞ্চল রুটে ঈদ উপলক্ষে বিশেষ সার্ভিসে যোগ হচ্ছে আরো ৬টি পরিবহন। তবে ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে বাসের অগ্রিম টিকেট বিক্রি।
এদিকে বাসের অগ্রিম টিকেট কিনতে গিয়ে বিরম্বনার শিকার হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা। বাসের টিকেট কালোবাজারীদের হাতে যাবার পাশাপাশি ঈদকে পুঁজি করে ভাড়া বৃদ্ধির অভিযোগও করেন তারা।
সূত্রমতে, আর ১১ অথবা ১২ দিন পরেই মুসলমানদের প্রধান ধর্মীও উৎসব ঈদ উল ফিতর। আর বছর ঘুরে আসা এই ঈদে পরিবারের স্বজনদের সাথে ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে নারীর টানে বাড়ি ফেরেন কর্মস্থলে বছর পার করা মানুষগুলো। বিশেষ করে ঢাকা এবং খুলনা সহ অন্যান্য শিল্পাঞ্চলের কর্মজীবী মানুষের আগমন ঘটে বরিশাল তথা দক্ষিণাঞ্চলে। সড়ক এবং নৌ পথে লাখ লাখ মানুষ ছুটেন বরিশালের উদ্দেশ্যে। এজন্য বস্ত হয়ে পড়তে হয় লঞ্চ ও বাস মালিকদের। যাত্রীদের সুবিধার পাশাপাশি নিজেদের লাভের আশায় নৌ এবং সড়ক পথে চালু করা হয় বিশেষ সার্ভিস। সকল প্রকার রোটেশন প্রথার উর্ধ্বে থেকে ডাবল ট্রিপের মাধ্যমে যাত্রীদের গন্তব্যে পৌছে দেন বাস ও নৌ-যান কর্তৃপক্ষ।
আসছে ঈদেও ঠিক একই ভাবে যাত্রীদের সেবা দিবে বাস এবং লঞ্চ কর্তৃপক্ষ। সে জন্য লঞ্চের পাশাপাশি সড়ক পথে বেসরকারী বাস মালিক সমিতির পক্ষ থেকেও যাত্রী সুবিধায় নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ।
বরিশাল বাস মালিক সিন্ডিকেটের সাবেক সাধারন সম্পাদক আলমগীর হোসেন বলেন, প্রতিবছর ঈদ এবং কুরবানীতে বরিশাল-ঢাকা রুটে যাত্রীদের চাপ সব থেকে বেশি থাকে। তাই যাত্রীদের ভাগান্তি দূর করতে এবার নিয়মিত পরিবহনের ন্যায় বরিশাল ঢাকা রুটে গ্রিন লাইনের ৬টি (ভলব) বিশেষ সার্ভিস চালুর কথা রয়েছে। বর্তমানে এই পরিবহনগুলো উত্তলাঞ্চলে চলাচল করছে। এগুলোতে বরিশাল টু ঢাকা গাবতলী রুটে সরাসরি যাত্রী পরিবহন করবে। তবে এ বিষয়ে ঢাকা থেকে এখন পর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি।
বরিশাল বাস মালিক সিন্ডিকেটের বর্তমান সাধারন সম্পাদক মো. ইউনুস খান বলেন, স্পেশাল সার্ভিস চালুর বিষয়ে আমরা এখন পর্যন্ত ঢাকা থেকে কোন চিঠি পাইনি। তবে জানতে পেরেছি আগামী ১৬ জুলাই থেকে সড়ক পথে বিশেষ সার্ভিস চলাচল শুরু হবে। তবে স্পেশাল সার্ভিসের টিকেট ইতোমধ্যে বিক্রি শুরু হয়েছে। তাছাড়া যাত্রীদের উপর নির্ভর করে স্পেশাল সার্ভিসে পরিবহন সংখ্যা বাড়ানো হবে। এ বিষয়ে দুই একদিনের মধ্যেই চূড়ান্ত সিন্ধান্ত হবে বলেও জানিয়েছেন বাস মালিক সিন্ডিকেটের এই নেতা।
বেসরকারী পরিবাহন ছাড়াও বরিশাল-মাওয়া রুটে ঈদে বিশেষ সার্ভিস হিসেবে ৬টি বাস চলাচল শুরু করতে যাচ্ছে বিআরটিসি বাস কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে ২টি এসি এবং বাকি চারটি নন এসি বাস নিয়মিত যাত্রী পরিবহন করবে। এছাড়াও প্রতি ৩০ মিনিট পর পর যাত্রী নিয়ে বাস ছাড়বে বলে নিশ্চিত করেছেন বিআরটিসি বরিশাল ডিপোর ব্যবস্থাপক নিহীর রঞ্জন মজুমদার। তিনি বলেন, আগামী ১০ জুলাই থেকে বিশেষ এই বাস সার্ভিসের অগ্রিম টিকেট কাউন্টারের মাধ্যমেই পাওয়া যাবে।