বানারীপাড়ায় ব্যবসায়ীদের রোষানলে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট

বানারীপাড়া প্রতিবেদক ॥ বানারীপাড়ায় ব্যবসায়ীদের রোষানলে পড়েছে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট। বানারীপাড়া বন্দর বাজারে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করতে গিয়ে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ব্যবসায়ীদের রোষানলে পড়েছেন। পৌর শহরেরর বন্দর বাজারের ফুটপাতের ক্ষুদ্র দুই চাল ব্যবসায়ী আশ্রাব আলী বেপারী ও মেজবা উদ্দিন বেপারী প্লাষ্টিকের বস্তায় চাল রাখার অপরাধে তাদের প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন। তখন উভয় ব্যবসায়ী তাদের কাছে থাকা একাধিক কিস্তির বই দেখিয়ে ধার্যকৃত জরিমানার টাকা কমাতে অনুরোধ করেন। অনুরোধ না মেনে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট তাদেরকে জেলের ভয় দেখালে বন্দরের সকল ব্যাবসায়ীরা তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। পরে ওসি মোঃ সাজ্জাদ হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনলে ব্যবসায়ীরা দোকানপাট খুলে দেন। এদিকে অভিযোগ উঠেছে বাজারের বড় বড় ব্যবসায়ীদের গোডাউনে বিপুল পরিমান প্লাষ্টিকের বস্তায় বিভিন্ন প্রকার মালামাল থাকায় তারা বাঁচতে দোকানপাট বন্ধ রেখে বিক্ষোভ করেন। অন্যদিকে বাজারেরর বড় বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে এভাবেই প্রতিনিয়ত প্লাষ্টিকের বস্তায় বিভিন্ন মালামাল বিক্রি করা হচ্ছে। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইসরাত জাহান জানান ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করার সময় নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করা অনভিপ্রেত আইনের লংঘন ও দুঃখ জনক। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত স্থানীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট তালুকদার মোঃ ইউনুস প্রশাসনের কর্মকর্তাদের, আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের সাথে বসে উভয়ের বুল বোঝাবোঝির অবসান ঘটান। এদিকে ব্যবসায়ীরা জানান, তারা বিভিন্ন জাতীয় দিবস সহ অন্যান্য দিবসে বিশেষ টাকা দিয়ে থাকেন। এর পরেও প্লাষ্টিকের বস্তায় বিভিন্ন মালামাল তারা রাখছেন না। এটা বিভিন্ন কোম্পানী থেকে তারা ক্রয় করছেন। ওখান থেকে বন্ধ করতে পারলে তাদের পক্ষে ভাল হবে। তারাও চায় প্লাষ্টিকের বস্তার পরিবর্তে পাটের বস্তায় সমস্ত মালামাল রাখা হউক।