বাণিজ্য মেলা শুরুর পূর্বেই ক্ষতির শংকা

জুবায়ের হোসেন॥ বরিশাল আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শুরুর পূর্বে আর্থিক ক্ষতিতে পড়ার আশংকা করছে অংশগ্রহণকারীরা। চেম্বার অব কমার্সের আয়োজনে এই মেলা মেরিন ওয়ার্কশপ মাঠে ১০ মার্চ থেকে শুরুর দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়েছে। বিগত ২/৩ বছরের মতো মেলা শুরুর পূর্বে ও পরে যাতে করে কোন সমস্যা না হয় সেই ব্যবস্থা নেয়ার পরেও শঙ্কিত অংশগ্রহণকারীরা। তাদের দাবী দেশের অস্থিতিশীল রাজনৈতিক অবস্থা আর বরিশাল বাণিজ্যমেলার দুর্ভোগ তো রয়েছেই, এর সাথে এবার যোগ হয়েছে নগরীর আশপাশের বছর ব্যাপী সহ মাসব্যাপী চলা বিভিন্ন নামের মেলা। এছাড়া রয়েছে বিগত বছর গুলোতে অংশ নিয়ে পোহানো আর্থিক ক্ষতির বিষয়টিও। তাই নতুন ব্যবসায়ীরা অংশ নিলেও আসছেননা পুরাতন একাধিক ব্যবসায়ী বলে জানিয়েছেন তারা। বিগত ৪ বছর ধরে বাণিজ্য মেলায় অংশ নেয়া ঢাকার নিউ মার্কেটের ক্রোকারিজ পণ্যর ব্যবসায়ী আনিছ মৃধা ও নারায়ানগঞ্জের ইলেক্ট্রনিক্স সরঞ্জাম বিক্রেতা এনায়েত হোসেন জানান, বাংলাদেশের বিভিন্ন বিভাগের বড় বড় মেলায় অংশ গ্রহণ করেন তারা। ২০১১ সালে প্রথম বরিশাল বাণিজ্য মেলায় অংশ নেন তারা। এর পর ধারাবাহিকতা বজায় রাখেন ২০১৪ পর্যন্ত। তবে প্রতি বছরই তারা দেখেছেন কোন না কোন সমস্যা। কখনও তা ক্ষমতাসীন দলের ব্যক্তিদের ভাগবাটোয়ারা ও প্রভাব বিস্তার নিয়ে, কখনও বিআইডব্লিউ টিএ ও চেম্বার অব কমার্সের মধ্যকার কখনও বা প্রাকৃতিক। তবে সব গুলো সমস্যাতেই ভুগতে হয়েছে তাদের বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা গুণতে হয়েছে হাজার হাজার টাকার আর্থিক ক্ষতি। তাই গত বছর ঢের শিক্ষা হয়েছে বলে তারা আরও জানান, তারা বিভিন্ন স্থানের মেলায় অংশ নেন আর্থিক মুনাফার জন্য। আর তাই যদি না হয় তবে অংশ নিয়ে কি লাভ? এবার তাই নতুন ব্যবসায়ীরা হয়ত অংশ নিবেন কিন্তু তাদের মত পুরাতন একাধিক ব্যবসায়ী নেবেন না পুণরায় ঝুঁকি। এদিকে বিগত বছরগুলোতে সমস্যার কথা ভুলে মেলার আয়োজকরা চেম্বার অব কমার্স নিয়েছে মেলার স্থানের পুরো প্রস্তুতি। আয়োজক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আগামী ১০ মার্চ উদ্বোধন হচ্ছে বাণিজ্য মেলা। উদ্বোধন করবেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার শৈবাল কান্তি চৌধুরী। ৪ থেকে ৫টি প্যাভিলিয়নের মেলায় থাকছে একশটি স্টল। ছোট প্যাভিলিয়নের ৩/৪টি। সার্বিক নিরাপত্তার জন্য থাকছে প্রশাসনের ক্যাম্প। প্রশাসনের সাথে সাথে আয়োজন কমিটির সদস্যরাও নিরাপত্তা বিষয়ে দায়িত্ব পালন করবেন। সার্বক্ষণিক বৈদ্যুতিক ব্যবস্থা থাকবে মেলায়। যাত্রা, র‌্যাফেল ড্র, হাউজি, পুতুল, নাচ, সার্কাস, মৃত্যুকূপে মটরসাইকেল খেলার মত সকল বিনোদনের ব্যবস্থা থাকবে দর্শনার্থীদের জন্য। সব মিলিয়ে এবার একটু বেশি সতর্কতা নিয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ আরও জানায়, প্রস্তুতির সিংহভাগ শেষ এখন শুধু উদ্বোধন ও মেলার সফল হওয়ার অপেক্ষা। এতো আয়োজনের পরও মেলা নিয়ে ব্যাবসায়ীদের আতংকের বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে বরিশাল চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক এটিএম শহিদুল্লাহ কবির জানান, বরিশাল বাণিজ্য মেলাকে প্রতিবছরই বিভিন্ন প্রতিকূলতার সম্মুখীন হতে হয়। তবে আগের বছরগুলো থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার অনুমতি সংক্রান্ত, রাজনৈতিক প্রভাব জনিত সকল সমস্যা আগ থেকেই সমাধান করা হয়েছে। এবার যাতে মেলায় অংশ নেয়া ব্যবসায়ীরা কোন বিড়ম্বনার পক্ষে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন না হয় সেই জন্য সব ব্যবস্থা নিতে প্রস্তুত বরিশাল চেম্বার অব কমার্স। এবারের মেলার সফলতার জোরালো সম্ভাবনার কথা জানিয়ে পূর্বের প্রতিকূলতা ভুলে ব্যবসায়ীদের অংশগ্রহণের আহবান জানান তিনি।