বাংলাদেশ ম্যাচের আগে ‘চাপে’ ইংলিশ বোলাররা

বিডিনিউজ ॥ হারলেই বিশ্বকাপ শেষ, বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে তাই সীমাহীন চাপে আছে ইংল্যান্ড। এই কারণেই ইংলিশ বোলাররা তাদের ‘আসল’ বোলিংটা করতে পারবেন না বলে মনে করেন বাংলাদেশের সাবেক বোলিং কোচ ইয়ান পন্ট। চার ম্যাচের তিনটিতে হেরে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ার শঙ্কায় পড়ে গেছে ইংল্যান্ড। শেষ দুই ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। দুই ম্যাচ জিতেও বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হতে পারে ইংল্যান্ডের। কারণ নিউ জিল্যান্ডকে হারালে কোয়ার্টার-ফাইনালে পৌঁছে যাবে বাংলাদেশ। দুই ইংলিশ পেসার জেমস অ্যান্ডারসন ও স্টুয়ার্ট ব্রডের বোলিংয়ে যথেষ্ট সুইং আছে। তবে দলটির দুশ্চিন্তার কারণ হলো এই দুই বোলারের ফর্মহীনতা। এ পর্যন্ত চার ম্যাচ খেলে মাত্র ২টি উইকেট পেয়েছেন অ্যান্ডারসন। আরেক পেসার ব্রডের উইকেটও সর্বসাকুল্যে ২টি। হারের ভয়ে তারা আরো সিঁটিয়ে যেতে পারেন বলে ধারণা গত বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারানো বাংলাদেশ দলের বোলিং কোচ থাকা পন্টের। একই রকম ধারণা পোষণ ১৯৯২ বিশ্বকাপের রানার্সআপ ইংল্যান্ড দলের সদস্য ডারমট রিভের। পন্ট বলেন “অ্যান্ডারসনের অস্ত্র সুইং, কিন্তু এই মুহূর্তে সে তার সামর্থ্যটা হারিয়ে ফেলেছে। স্কিলের জন্য সুপরিচিত অ্যান্ডারসনের মতো একজন বোলারের এই সমস্যা আপনাকে অবাক করতে পারে; এটা কি চাপের জন্য? সে কি একটু আড়ষ্ট, চিন্তিত? সে কি বেশি জোর দিয়ে ফেলছে?” দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া অবস্থা থেকে ঘুরে দাঁড়াতে হলে দলের সমস্যা খুঁজে বের করাটাই ইংল্যান্ডের এখন প্রধান কাজ বলে মনে করেন পন্ট। কোনো খেলোয়াড় বা কোচ যদি সমস্যা হয়, তাহলে সেটাকে পাল্টে ফেলাই উচিত বলে মনে করেন তিনি। তার মতে, ‘সিস্টেমের’ সমস্যা হলেও তা পাল্টানো সম্ভব, কিন্তু কারণটা ‘কালচার’ হলে সেটা কিছুটা সমস্যারই বটে।