বর্ণিল আয়োজনের বসন্তকে বরণ

সিদ্দিকুর রহমান ॥ বর্ণিল আয়োজনে বরণ করা হয়েছে ঋতুরাজ বসন্তকে। গতকাল শনিবার ঋতুরাজ বসন্তের (ফাল্গুন) প্রথম দিন থেকে নবপত্র-পল্লবে জেগে উঠেছে বৃক্ষরাজি, ফুলে ফুলে সেজেছে প্রকৃতি। নব যৌবনের ঋতুকে বরণ করে নিয়ে ফাল্গুনের প্রথম প্রভাতেই শুরু হয় এই উৎসব। ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে বাসন্তী-লাল রঙের শাড়ি, মাথায় ফুলের মুকুট পড়ে, নেচে গেয়ে আনন্দঘন পরিবেশের মধ্য দিয়ে দিনটিকে উৎসবমুখর করেছে শিক্ষার্থীরা। বসন্তকে ঘিরে উৎসবমুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছিল নগরীর বিনোদন ও ভ্রমন স্পটগুলোতে। এদিকে বসন্তের প্রথম দিনে বিকেল সাড়ে ৩ টায় নগরীর জগদীশ স্বারস্বত স্কুল এ্যান্ড কলেজে আয়োজন করা হয় বসন্তবরণ উৎসবের। সাংস্কৃতিক সংগঠন উদীচী এবং বরিশাল নাটকের যৌথ আয়োজনে “বাসন্তী বিকেল এসো ¯œাত হবো আনন্দ ধারায়” এই আহ্বানে কচি-কাঁচা শিশুদের পরিবেশিত নাচ গানে আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছিল বিদ্যালয় প্রাঙ্গন। বসন্তবরণ উৎসবের উদ্বোধন করেন উদীচী কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি বদিউর রহমান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদর ৫ আসনের সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজ। “আজ সবার রঙে রঙ মিশাতে হবে- ওগো আমার প্রিয় তোমার রঙ্গীন উত্তরীয়’’ এই গানে গানে বসন্ত উৎসবে উপস্থিত ছিলেন উদীচীর সাবেক সভাপতি নারায়ন সাহা, সংস্কৃতিজন মানবেন্দ্র বটব্যাল, মুকুল দাস, এস এম ইকবাল, মুক্তিযোদ্ধা আক্কাস হোসেন, অধ্যাপক এম মোয়াজ্জেম হোসেন, সৈয়দ দুলাল, সাংস্কৃতিক সংগঠন সমন্বয় পরিষদের সাবেক সভাপতি শান্তিদাস, সংস্কৃতিজন কাজল ঘোষ, নূরজাহান বেগম, উদীচী সভাপতি এ্যাড. বিশ^নাথ দাস মুন্সী, বরিশাল নাটক সভাপতি আজমল হোসেন লাবু, নজরুল ইসলাম চুন্নু, ব্রজমোহন কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক স.ম. ইমামুল হাকিম, সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ এনায়েত হোসেন, হাতেম আলী কলেজের অধ্যক্ষ শচীন কুমার রায়, বরিশাল কলেজের অধ্যক্ষ খন্দকার অলিউল ইসলাম, উদীচী সদস্য কাজী সেলিনা, সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুবা হোসেন, জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক সাবিনা ইয়াসমিন, রুপাতলী সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পাপিয়া জেসমিন, আভাসের নির্বাহী পরিচালক রাহিমা সুলতানা কাজল, সাবেক কাউন্সিলর নিগার সুলতানা হনুফা, উদীচী সাধারণ সম্পাদক ¯েœহাংশ কুমার বিশ^াস সহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মীবৃন্দ। বসন্ত বরণ উৎসবে নানা বয়সের মানুষ নানা সাজে অংশগ্রহণ করেছে। এদিকে বসন্তবরণ উৎসবে নৃত্য, সঙ্গীত, আবৃত্তি ও গীতিকাব্য পরিবেশন করেছে উদীচী, বরিশাল নাটক, রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ, প্রান্তিক সঙ্গীত বিদ্যালয়, উত্তরণ সাংস্কৃতিক সংগঠন, নৃতাঙ্গন, অশি^নী কুমার সাংস্কৃতিক সংগঠনের শিল্পী ও কর্মীরা। এদিকে বসন্ত উৎসবকে ঘিরে নগরীর ফুলের দোকানগুলোতে ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত। ফুলের দোকানীরা গোলাপ, রজনীগন্ধা, গ্লাডিওলাস, জারবেরা, গাঁদা সহ নানা রকমের ফুলের পসরা সাজিয়ে বসেছিল। ফুলের চাহিদা থাকায় পূর্বের তুলনায় এর দামও ছিল বেশী। অন্যদিকে বসন্ত উৎসবকে ঘিরে নগরীর বিনোদন স্পট ত্রিশ গোডাউন বদ্ধভূমি, মুক্তিযোদ্ধা পার্ক, প্লানেট ওয়ার্ল্ড শিশু পার্ক, স্বাধীনতা পার্ক, দূর্গাসাগর, কাঞ্চন পার্কে প্রকৃতি ও বসন্ত প্রেমীদের ভিড়ও লক্ষ্য করা গেছে।