বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের গেট ময়লার গাড়ি দিয়ে আটকে বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বকেয়া বেতনের দাবীতে প্রায় এক সপ্তাহ থেকে কর্মবিরতী পালন করছেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের নিয়মিত এবং দৈনিক মজুরী ভিত্তিক কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় রবিবার সকাল আটটা থেকে কর্পোরেশন ভবনের প্রধান দুটি গেট ময়লার গাড়ি দিয়ে আটকে রেখে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছেন বিক্ষুব্ধরা। পাশাপাশি ভবনের মূল প্রবেশপথের গেটটি আটকে দিয়ে তার সামনে বসে লাগাতার কর্মবিরতী ও অবস্থান ধর্মঘটন পালন করছেন।
আন্দোলনকারীরা জানান, মেয়র আহসান হাবিব কামাল কয়েকজন কাউন্সিলরকে সাথে নিয়ে কর্পোরেশনে আসবেন বলে শোনা যাচ্ছে। তিনি বকেয়া বেতনের দাবীতে আন্দোলনকারীদের সাথে কথা না বলে কর্পোরেশনে কোন কর্মকান্ড যাতে না চালাতে পারে সেজন্যই মূল গেটের সামনে ময়লার গাড়ি ও ভবনের প্রবেশদ্বার আটকে দেয়া হয়েছে। আন্দোলনকারী বিসিসির পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা দীপক চন্দ্র লাল জানান, নিয়মিত, অনিয়মিত কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের বকেয়া পরিশোধ না করা পর্যন্ত তাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, শনিবার মেয়র সংবাদ সম্মেলনে পূর্বের মেয়রের সময়ের তিন মাসের বকেয়া রয়েছে বলে জানিয়েছেন, তা সঠিক নয়। আবার গুটি কয়েক কর্মচারী ভয় দেখিয়ে আন্দোলনে বাধ্য করছে সে কথাও সঠিক নয়। মেয়রের আর্শিবাদপুষ্টরা নানানভাবে ভয় দেখিয়ে আন্দোলনরত শ্রমিকদের মাঝে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। এদিকে আন্দোলনের কারনে গত সোমবার থেকে মেয়র কর্পোরেশনের যেতে না পারলেও রবিবার সকাল নয়টায় কাউন্সিলরদের সাথে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু বিকেল ৫টা পর্যন্ত তিনি আসেননি।
সূত্রমতে, শনিবার বিকেলে মেয়র আহসান হাবিব কামাল বেশ কয়েকজন কাউন্সিলদের নিয়ে নগরীর কালুশাহ সড়কের তার নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, রবিবারের মধ্যে যদি পরিচ্ছন্নকর্মীরা কাজে যোগদান না করে তাহলে ওয়ার্ড কাউন্সিলররা নতুনভাবে কর্মচারী নিয়ে সোমবার সকাল থেকে স্ব-স্ব ওয়ার্ড পরিচ্ছন্নের কাজে নেমে পড়বে।