বরিশাল বোর্ডে জেএসসি পরীক্ষার্থী এক লাখের বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ আগামীকাল ১লা নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা। এবারের জেএসসি পরীক্ষায় বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের অধিনে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা এক লক্ষ নয় হাজার ৩৬৩ জন। তবে মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্রীদের সংখ্যাই বেশি।
এদিকে নির্দিষ্ট সময়ে পরীক্ষা শুরু’র লক্ষ্যে চলছে নানা প্রস্তুতি। সুষ্ঠু ও সু-শৃঙ্খল পরিবেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত করনের লক্ষ্যে প্রতিটি জেলায় জেলায় জেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে গঠিত হয়েছে ভিজিলেন্স টিম। পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকেও নেয়া হয়েছে বিশেষ আগাম নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানাগেছে, আগামী ১লা নভেম্বর থেকে দেশ ব্যাপী জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু হবে। মাস ব্যাপী চলবে এই পরীক্ষা। এবার বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এক হাজার ৬৮৪টি বিদ্যালয় থেকে মোট এক লক্ষ নয় হাজার ৩৬৩ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়ার কথা রয়েছে। এর মধ্যে নিয়মিত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা এক লক্ষ সাত হাজার ৮৮১ জন। অনিয়মিত পরীক্ষার্থী এক হাজার ৪৬৮ জন এবং জিপিএ উন্নয়নের জন্য পরীক্ষা দিচ্ছেন আরো ১৪ জন।
বরিশাল বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্র সংখ্যা ৫২ হাজার ৩৭৩ জন এবং ছাত্রী সংখ্যা ৫৬ হাজার ৯৯০ জন।
বরিশাল জেলায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৩৬ হাজার ৭৩৪ জন। এর মধ্যে ছাত্র ১৬ হাজার ৯৯৮ এবং ছাত্রী ১৯ হাজার ৭৩৬ জন। এ জেলায় পরীক্ষার কেন্দ্র সংখ্যা ৫৮ টি।
ঝালকাঠি জেলায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১০ হাজার ৩৩ জন। এর মধ্যে ছাত্র চার হাজার ৫৮৫ এবং ছাত্রী পাঁচ হাজার ৪৮৪ জন। এ জেলায় পরীক্ষার কেন্দ্র সংখ্যা ১৬টি।
পিরোজপুর জেলায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৪ হাজার ৪৭৩ জন। এর মধ্যে ছাত্র ছয় হাজার ৫০২ এবং ছাত্রী সাত হাজার ৯৭১ জন। এ জেলায় পরীক্ষার কেন্দ্র সংখ্যা ১৮টি।
পটুয়াখালী জেলায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৯ হাজার ৩৭৬ জন। এর মধ্যে ছাত্র ১০ হাজার ৩৩ এবং ছাত্রী নয় হাজার ৩৪৩ জন। এ জেলায় পরীক্ষার কেন্দ্র সংখ্যা ২৪টি।
বরগুনা জেলায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১২ হাজার ১৯১ জন। এর মধ্যে ছাত্র পাঁচ হাজার ৯৯৫ জন এবং ছাত্রী ছয় হাজার ১৯৬ জন। এ জেলায় পরীক্ষার কেন্দ্র সংখ্যা ১৬টি।
এছাড়া ভোলা জেলায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৬ হাজার ৫৫৬ জন। এর মধ্যে ছাত্র আট হাজার ২৬০ জন এবং ছাত্রী আট হাজার ২৯৬ জন। এ জেলায় পরীক্ষার কেন্দ্র সংখ্যা ২১টি।
বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শাহ আলমগীর জানান, যারা মান উন্নয়ন পরীক্ষা দিবেন তাদের পুরাতন প্রশ্নে পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। এছাড়া নতুনদের প্রশ্ন হবে প্রচলিত নিয়মে। তিনি বলেন, পরীক্ষা গ্রহণের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে প্রতিটি কেন্দ্র সচিবদের চিঠি দেয়া হয়েছে। আজকের মধ্যে আসন বিন্যাস সম্পন্ন করা হবে। তাছাড়া শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ গঠন করেছেন ভিজিলেন্স টিম। পাশাপাশি পরীক্ষা চলাকালে আইন শৃংখলা রক্ষায় প্রশাসনকে চিঠি দেয়া হয়েছে।
এদিকে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে নকল মুক্ত পরীক্ষা গ্রহণের লক্ষ্যে বরিশাল জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চারটি ভিজিলেন্স টিম গঠন করা হয়েছে। এর মধ্যে তিনটি টিমের নেতৃত্ব দিবেন তিনজন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বাকি একটি টিমের নেতৃত্ব দিনেব অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট। প্রতিটি টিমে তিনজন করে সদস্য রয়েছে। এক একটি টিম দুই থেকে তিনটি উপজেলার দায়িত্ব পালন করবে। বরিশাল ছাড়াও অন্যান্য জেলায় একইভাবে জেলা প্রশাসন কর্তৃপক্ষ ভিজিলেন্স টিম গঠন করেছেন বলে সূত্র নিশ্চিত করেছে।