বরিশালে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎবার্ষিকীতে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার ভূয়া জন্মদিন পালন না করায় প্রতিকার চেয়ে আদালতে নালিশী মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে দায়ের মামলায় খালেদা জিয়াসহ আটজনকে অভিযুক্ত করা হয়।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, বিএম কলেজের ছাত্র কর্মপরিষদের ভিপি মঈন তুষার বাদি হয়ে সদর সিনিয়র সহকারি জজ আদালতে নালিশী মামলাটি দায়ের করার পর আদলতের বিচারক এইচ.এম কবির হোসেন মামলাটি আমলে নিয়ে পরবর্তী শুনানীর জন্য মামলার নথি রেখে দিয়েছেন। মামলার বাদি বলেন, ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎবার্ষীকি জাতির জন্য বেদনাদায়ক ঘটনা। এইদিনে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে বেগম খালেদা জিয়া তার ভূয়া জন্মদিন পালনের মধ্যদিয়ে বঙ্গবন্ধুর জিবীত খুনি ও তাদের দোসরদের এখনও উৎসাহ জুগিয়ে আসছেন। যা বাঙালি জাতির জন্য অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা। তাই ১৫ আগস্ট যাতে বেগম খালেদা জিয়া জন্মদিন পালন করতে না পারেন, সেলক্ষ্যে স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে তিনি এ নালিশী মামলাটি দায়ের করেন (যার নং-২০৮)।
মামলার বাদি বিএম কলেজের ভিপি মঈন তুষারের আাইনজীবী এ্যাডভোকেট কে.বি.এস. আহমেদ কবির ও এ্যাড. আজাদ রহমান জানান, নালিশী মামলায় সর্বমোট আটজনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। এই মামলার অন্যান্য বিবাদীরা হলেন-বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বরিশাল মহানগর বিএনপির সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ার, বরিশাল জেলা দক্ষিণ শাখা বিএনপির সভাপতি এবায়েদুল হক, উত্তর জেলা সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ  ও সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি কাজী এনায়েত হোসেন।