বরগুনায় কলেজছাত্রীকে ‘ধর্ষণ’

বিডিনিউজ॥  বরগুনা সরকারি মহিলা কলেজের এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রেমিকসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার সন্ধ্যায় সদরের মনসাতলী গ্রামে এ ঘটনার পর রাতেই পাঁচজনকে আসামি করে মামলা করে মেয়েটি নিজে। রাতেই তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতে হাজির করলে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়। বরগুনা থানার ওসি শামসুল হক জানান, মামলা করার পর আয়লা পাতাকাটা ইউনিয়নের লেমুয়া গ্রামের আলতাফ হোসেন মাস্টারের ছেলে জিহাদ, লাকুরতলা গ্রামের খলিলুর রহমান ও ঘটবাড়িয়া গ্রামের দিপঙ্করকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পলাতক রয়েছে লাকুরতলা গ্রামের সনদ রায় ও মনোতোষ। মামলার বরাত দিয়ে ওসি জানান, মাস খানেক আগে জিহাদের সঙ্গে ওই ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বুধবার সন্ধ্যার মনসাতলী গ্রামের একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে জিহাদ মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। এ সময় অন্য আসামিরা তাকে সহযোগিতা করে। এছাড়া আসামিরা ওই ছাত্রীর গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন এবং কানের রিং ছিনিয়ে নিয়ে গেছে বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়। ওসি আরো বলেন, আসামিরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মেয়েটিকে বরগুনা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলেও তিনি জানান।