ববিতে অনুষ্ঠিত হয়েছে জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ ‘জানুক সবাই, দেখাও তুমি’ এই শ্লোগান নিয়ে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৮টায় কর্নকাঠি বিশ্ব বিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে বেলুন উড়িয়ে প্রতিযোগিতার আঞ্চলিক পর্বের উদ্বোধন করেন টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী” জুনাইদ আহম্মেদ পলক।
ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রনালয় আয়োজিত প্রতিযোগিতার উদ্বোধন পরবর্তী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের চেয়ারম্যান রাহাত হোসাইন ফয়সাল এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েত আহম্মেদ পলক বলেন, আজকের এই হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার মাধ্যমে নতুন এক বাংলাদেশের সূচনা হলো। আজকের এই আয়োজন আগামীতে মাইল ফলক হিসেবে কাজ করবে।
তিনি বলেন, আমরা জানি আমাদের ছেলে-মেয়েরা অনেক মেধাবী। তাদেরকে লেখা পড়ার পাশাপাশি শুধু মাত্র প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার মত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনের সুযোগ করে দিতে হবে। তাহলে অভিভাবকরা দেখতে পাবেন এক সময় তাদের সন্তান গুগল, ফেসবুক, টুয়েটার তৈরী করে অসাধ্যকে সাধন করেছে।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত এবং বক্তব্য রাখেন, আইসিটি বিভাগের উপ-পরিচালক ড. বিকর্ন কুমার ঘোষ, বরিশাল জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল আলম, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানবিক অনুষদের ডিন ড. মো. মুহসিন উদ্দিন, রেজিস্ট্রার মো. মনিরুল ইসলাম, গনিত বিভাগের চেয়ারম্যান মো. শফিউল আলম, শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। এছাড়া জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহন করেছে বিভিন্ন স্কুলের ৮শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী।
অনুষ্ঠান শেষে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনকারীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন আইসিটি বিভাগের উপ-সচিব ড. বিকর্ন কুমার ঘোষ।
এছাড়া অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহম্মেদ পলক বরিশাল বিশ্ব বিদ্যালয়ের ৫০ জন শিক্ষার্থীকে ল্যাপটপ প্রদান করেন। সেই সাথে সেমি ইনকিউবিটার তৈরি করে সরকারের ইনোভেষণ ফান্ডের আওতায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি প্রজেক্ট দেয়ারও প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।