বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে আ’লীগকে নিশ্চিহ্ন করার স্বপ্ন পূরণ হয়নি-অ্যাড. ইউনুস এমপি

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জেলা যুবলীগের আয়োজনে শোক সভা ও দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার নগরীর সোহেল চত্ত্বরে এই কর্মসূচী ানুষ্ঠিত হয়।
সভায় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ’র অনুপস্থিতিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও বরিশাল-২ আসনের সাংসদ অ্যাড. তালুকদার মো. ইউনুস।
এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা যুবলীগের সভাপতি অধ্যাপক জাকির হোসেন। সভা পরিচালনা করেন সাধারন সম্পাদক ফজলুল করিম শাহীন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল¬াহ, যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক হোসেন তুহিন ও আসাদুল হক আসাদ। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগের সাবেক শহর শাখার সভাপতি তারিক বিন ইসলাম ও সাধারন সম্পাদক ও যুবলীগ নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নু, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ নেতা শাহনেওয়াজ শাহিন, মো. মিজানুর রহমান মিজান প্রমুখ।
প্রধান অতিথি অ্যাড. তালুকদার মো. ইউনুস-এমপি বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধ পরবর্তী ১৯৭৫ সনের সেই কালো রাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্ব-পরিবারে নির্মমভাবে গুলি করে হত্যা করা হয়। তাদের নির্মমতার হাত থেকে রেহাই পায়নি সেদিনের শিশু সুকান্ত আব্দুল্লাহও।
তিনি বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী পাকিস্তানি দোসর বিএনপি-জামায়াত জোট চেয়েছিলো বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে এদেশ থেকে আওয়ামীলীগকে নিশ্চিহ্ন করে দিবে। কিন্তু তাদের সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন হয়নি। বর্তমান প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পর তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ আবার উজ্জীবিত হয়েছে।
এমপি ইউনুস বলেন, বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। যা ইতোপূর্বে অন্যকোন সরকার ক্ষমতায় থাকা কালে হয়নি। বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় থাকা কালীন হয়েছে শুধু লুটপাট আর দুর্নীতি।
বর্তমান সরকারের উন্নয়ন দেখে সহ্য করতে পারছে না বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। তাই তিনি উন্নয়ন কর্মকান্ড বাধাগ্রস্ত করতে দেশে হত্যা নৈরাজ্য আর সন্ত্রাসের সৃষ্টি করেছে।
বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার প্রতি হুশিয়ারী উচ্চারণ করে এমপি তালুকদার মো. ইউনুস বলেন, আপনি ক্ষমতার লোভে পাগল হয়ে আছেন। তাই লাশের উপর দিয়ে ক্ষমতায় আসার চেষ্টা করছেন। কিন্তু এসব করে কখনই ক্ষমতায় আসতে পারবেন না। দেশের জনগন আপনার সকল চক্রান্ত ধরে ফেলেছে। দেশের মানুষ উন্নয়ন চায়। যে কারনে আপনারা মানুষ মারার আন্দোলন বেশিদিন টিকিয়ে রাখতে পারেননি। তাই এখনো সময় আছে গনতান্ত্রিক ধারায় আগামী নির্বাচনের জন্য অপেক্ষা করুন। কারন মধ্যবর্তী নির্বাচন হওয়ার কোন সম্ভাবনাই নেই।
এসময় উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের জেলা শাখার সাবেক যুগ্ম আহবায়ক কাজী মুনিরউদ্দিন তারিক, যুবলীগ নেতা নিরব হোসেন টুটুল, ছাত্রলীগ জেলার সভাপতি হেমায়েত উদ্দিন সেরনিয়াবাত সুমনসহ নেতৃবৃন্দ।