প্রক্সি দিতে এসে আটক ১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রক্সী দিতে আসার অভিযোগে ১৯জনকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে নগরীর বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে এদের আটক করা হয়। আটককৃতদের মধ্যে ১০জন যুবতী ও ৯ জন যুবক রয়েছে। তারা হলো- সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া থানার সোনাইগাতি গ্রামের মৃত আঃ লতিফ সরদারের ছেলে মামুনুর রশীদ, চাঁদপুর কচুয়া থানার আকানিয়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে রেজাউল করিম, মুলাদী দক্ষিণ গাছুয়া গ্রামের সামসুল হক সিকদারের ছেলে মিরাজ সিকদার, বাগেরগঞ্জ উপজেলার বাগদিয়া গ্রামের মোঃ রুস্তম আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেরার চানপুর গ্রামের নোমানীর ছেলে শহিদুল ইসলাম, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার রোকনদি গ্রামের আঃ কাদের এর ছেলে নুরুল আমিন, ভান্ডারিয়া উপজেলার দাওয়া গ্রামের সিকান্দার আলীর ছেলে মোঃ রাসেল, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার লেঙ্গুটিয়া গ্রামের মোঃ শহিদুল ইসলাম এর ছেলে মোঃ হাসান, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার গোপালপুর গ্রামের আঃ মান্নান এর ছেলে মোঃ ফয়সাল, মুলাদী উপজেলার চরকালনা গ্রামের হেলাল উদ্দিন ঢালির মেয়ে শারমিন, মুলাদী উপজেলার চরকালনা গ্রামের আনোয়ার হোসেন মৃধার মেয়ে নাজমিন নাহার, মুলাদী উপজেলার চরলক্ষিপুর গ্রামের নুরুল ইসলাম এর মেয়ে আখি নূর, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার আজিমপুর গ্রামের শহিদুল ইসলাম এর মেয়ে শামিমা, হিজলা উপজেলার বদরটুনি গ্রামের আলি আহমেদ ঘরামীর মেয়ে সাথী, হিজলা উপজেলার কাউরিয়া গ্রামের মাসুদ ঢালীর মেয়ে জান্নাত, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার মধ্যভাঙ্গা গ্রামের আঃ গণি সরদার এর মেয়ে শারমিন, মুলাদী উপজেলার ষোলঘর গ্রামের গোলাম মোস্তফার মেয়ে জান্নাত, হিজলা উপজেলার কঙ্গোনি ভাঙ্গা আব্দুল রাজ্জাক এর মেয়ে শাহিনা ও মুলাদী উপজেলার চরকালেখাঁ গ্রামের মাওঃ সামসুল হকের মেয়ে রোকেয়া। কোতয়ালী মডেল থানার এসআই গোলাম কবির জানান, গোপন সংবাদে জানতে পারি আটককৃতরা আবাসিক হোটেল এথেনায় অবস্থান করে প্রবেশপত্রে দেওয়া স্বাক্ষর নকল করার চেষ্টা করছে। এমন খবরে হোটেল এথেনার বিভিন্ন কক্ষে অভিযান চালিয়ে এদের আটক করা হয়। আটককৃতদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ আঃ রউফ সিদ্ধান্ত নিবেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোতয়ালী মডেল থানায় আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করছেন উপ-পুলিশ কমিশনার আঃ রউফ।