পূজা মন্ডপে অসুরিক কার্যক্রম বরদাস্ত করা হবে না- জেলা প্রশাসক

চন্দন জ্যোতি॥ শারদীয় উৎসবে মন্ডপে মন্ডপে দেবী দর্শন আর পূজায় শুধু ব্যস্ত সময় কাটালেই হবে না। বরং এর পূর্বে ঘরের দেব-দেবী রূপী পিতা-মাতার প্রতি যেন সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করা হয়। এর মাধ্যমেই পূজার মাহিমা ও আনন্দে পূর্ন মাত্র পেতে পারে। জেলা প্রশাসক মোঃ শহীদুল আলম গতকাল তার সভাকক্ষে আসন্ন শারদীয় দূর্গোৎসবের প্রস্তুতিমূলক সভায় এমন আহবান জানান। তিনি শারদীয় দুর্গোৎসবে শান্তি-শৃংঙ্খলা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের কঠোর অবস্থানের কথা উল্লেখ করে বলেন উৎসবে ধর্মের নামে কোন অধর্ম, কোন অসুরিক কার্যকলাপ আর ইভটিজিংকে বরদাস্ত করা হবে না। এ ধরনের কার্যকলাপের সাথে সাথে ৫০৯ ধারায় এক বছরের কারাদন্ড প্রদান করা হবে। সাম্প্রতিক কালে অনেক পূজা অনুষ্ঠানে ঢাকের বাজনা স্থলে আধুনিক নানা বাজনার সাথে উদ্যম নৃত্য, ধর্মের মূল লক্ষ্য ব্যাহত করছে বলে হতাশা ব্যক্ত করেন। মন্ডপে মন্ডপে দূর্গা পূজার উপর আলোচনার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন দেবী দূর্গা যেমন অসূরকে দমন করেছিলেন তেমনি বরিশালে কোন অসূরকে বরদাস্ত করা হবে না। দূর্গোৎসবের মাধ্যমে সমাজে সৌহার্দের সম্পর্ক গড়ে তোলার প্রত্যাশা ব্যাক্ত করেন। অন্যদিকে পূজা উপলক্ষে সরকারের পক্ষ থেকে বরাদ্দকৃত চালের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার ওপর জোর দেন। অন্যদিকে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রাখাল চন্দ্র দে জানান, এ বছর শারদীয় দূর্গোৎসব আরো সুন্দর ও সফল করে তোলার জন্য জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদ নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
সভায় এডিসি(সার্বিক) আবু ইউসুফ মোঃ রেজাউর রহমান, এ্যাডঃ এসএম ইকবাল, প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক লিটন বাশার সহ জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ এবং পূজা মন্ডপের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।