পুলিশের উপর হামলায় আ’লীগ-ছাত্রলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে পৃথক দুই মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ কাউনিয়া থানার পুলিশের উপর হামলা করে আসামী ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় অঅ’লীগ ও ছাত্রলীগ নেতা ভাইসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে পৃথক দুইটি মামলা হয়েছে। শুক্রবার গভীর রাতে পৃথক দুই মামলার একটি মাদক আইনে ও অপরটি সরকারী কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। পৃথক দুই মামলার বাদী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহীন খান।
পুলিশ জানিয়েছে, মাদক আইনে করা মামলার আসামীরা হলো-সালাউদ্দিন আহম্মেদ, মেহেদি হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান ও সালমান ওয়াহিদ।
বেআইনী জনতাবদ্ধে গতিরোধ করে সরকারী কাজে বাধা দেয়া ও বল প্রয়োগ করে স্বেচ্ছায় সরকারী কর্মচারীকে গুরুতর জখম করা এবং আসামী ছিনিয়ে নেয়ার প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগে করা মামলার প্রধান আসামী হলো ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মুরাদ হাসান রিন্টু। এছাড়া অন্যান্যরা হলো ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতি তার ভাই মফিজুল ইসলাম নান্টু,একে আজাদ মিয়া, শহীদ, তোফেল মিয়া, সোহেল আকন, শামীম ও আল-আমিন। এ মামলায় ৭ জন অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়েছে।
ওসিকাজী মাহবুবুর রহমান জানান, নগরীর উলালঘূনি গাউয়ারশ্বর এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদক সহ ৫ জনকে আটক করা হয়। আটককৃতদের থানায় নিয়ে যাওয়ার পথে আওয়ামী লীগ নেতা মুরাদ হাসান রিন্টুর নেতৃত্বে স্থানীয়রা পুলিশের উপর হামলা চালায়। তাদের হামলায় কনষ্টেবল সাদেকুর রহমান সাদেক ও মোখলেছুর রহমান আহত হয়।