পাসপোর্ট সোহাগকে জেলে প্রেরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বিএম কলেজের বিলুপ্ত ছাত্র কর্মপরিষদের ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মুন্নাকে কুপিয়ে জখমের মামলায় কথিত ছাত্রলীগ নেতা সোহাগকে জেলে পাঠিয়েছে আদালত। গ্রেফতারের পর গতকাল শনিবার সোহাগকে অতিরিক্ত চীফ মেট্রোপলিটন আদালতে সোপর্দ করে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ। আদালতের বিচারক অমিত কুমার দে সোহাগকে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সোহাগ ওরফে পাসপোর্ট সোহাগ নগরীর পুরাতন পাসপোর্ট গলির বাসিন্দা। আদালতসূত্র জানায়, রাজনৈতিক বিরোধের জের ধরে গত ২ ফেব্রুয়ারি নগরীর বৈদ্য পাড়া গলির মুখে মুন্নাকে একা পেয়ে কুপিয়ে জখম করে পাসপোর্ট সোহাগ সহ কয়েকজন। এ ঘটনায় মুন্না বাদী হয়ে নামধারী ৮ জন সহ অজ্ঞাত ৫ জনকে আসামী করে কোতয়ালী মডেল থানায় মামলা করে। যার প্রেক্ষিতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই দেলোয়ার হোসেন মামলার পরপরই এজাহারনামীয় নূর আল আহাদ সাইদি সহ ২ জনকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করে। তারা কুপিয়ে জখমের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় বিচারকের কাছে জবানবন্দী দেয়। এতে সোহাগের জড়িত থাকার ঘটনা স্বীকার করে ঐ দুই জন। এছাড়াও পাসপোর্ট সোহাগ মামলার এজাহারভুক্ত আসামী। এরই প্রেক্ষিতে গতকাল রাতে সোহাগকে গ্রেফতার করা হয়।