পাসপোর্ট অফিসে ঘুষ কেলেংকারী এসআই সহ চার পুলিশ সদস্য ক্লোজড

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ পাসপোর্ট করতে আসা নৌ-বাহিনীর কর্মকর্তার কাছে ঘুষ দাবী করায় বরিশাল বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসে দায়িত্বরত চার পুলিশ সদস্যকে ক্লোজড করা হয়েছে। গত ২২ মে রোববার বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার লুৎফর রহমান মন্ডলের নির্দেশে তাদের লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মহানগর পুলিশের মুখপাত্র ও সিনিয়র সহকারি কমিশনার আবু সাঈদ। তাছাড়া ঘুষ দাবীর সাথে সম্পৃক্ততা থাকার অভিযোগে বিভাগীয় পাসপোার্ট অফিসের অফিস সহকারি মাঈনুল এর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত সুপারিশ পাঠানো হয়েছে বলে উপ-পরিচালক সুমনা শাওন শারমীন নিশ্চিত করেছেন।
অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যরা হলেন, উপ-পরিদর্শক (এসআই) এবি উজ্জল, নায়েক হাবিবুর রহমান, কনস্টেবল ইমামুল হক ও মোস্তাফিজুর রহমান। ঘুষ চাওয়ার অভিযোগে চার পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানিয়েছেন মেট্রোপলিটন পুলিশের মুখপাত্র সহকারি কমিশনার আবু সাঈদ।
তিনি জানান, গত রোববার ঢাকার মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) প্রজেক্ট সহকারি ব্যবস্থাপনা প্রকৌশলী নৌ-বাহিনীর লেফটেন্যান্ড জাওয়াদ হাবিব চৌধুরী পাসপোর্ট অফিসে আসেন। এসময় সেখানে দায়িত্বে থাকা পুলিশের নায়েক হাবিব তাকে ডাকে বাড়তি টাকা দিয়ে ঝামেলা ছাড়াই পাসপোর্ট অফিসের অফিস সহায়ক মাইনুলের মাধ্যমে কয়েক দিনের মধ্যে পাসপোর্ট বের করে দেয়ার কথা বলেন। এ সময় তার সঙ্গে এসআই এবি উজ্জল, কনস্টেবল ইমামুল এবং মোস্তফা যোগ দেন।
এদিকে ঘুষ চাওয়ার বিষয়টি নৌ বাহিনীর ঐ কর্মকর্তা বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালক সুমনা শাওন শারমীন এর কাছে লিখিত অভিযোগের মাধ্যমে জানান। উপ-পরিচালক বিষয়টি মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারকে জানালে তাদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। সেই সঙ্গে রোববার সন্ধ্যার পর তাদের পাসপোর্ট অফিস থেকে ক্লোজ করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়।
বিষয়টি নিশ্চিত করে সহকারি পুলিশ কমিশনার আবু সাঈদ আরো জানান, অভিযুক্তদের অভিযোগের বিষয়টি তদন্তের জন্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।