পলিটেকনিকে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সশস্ত্র ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, আটক-৬ আহত -১

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ বরিশাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করা নিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সশস্ত্র ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বুধবার দুপুর থেকে শুরু হওয়া এই ঘটনার জেরে বিকেলে এক গ্রুপের হামলায় অপর গ্রুপের আসাদুজ্জামান ফাহিম নামে এক ছাত্র আহত হয়েছে। সে মেকানিক্যাল ৪র্থ পর্বের শিক্ষার্থী।
এছাড়াও পুলিশ ৬ শিক্ষার্থীকে আটক করেছে। আটক শিক্ষার্থীরা হলো- ইলেকট্রনিক্স প্রথম বর্ষের প্রকাশ রায়, মেকানিকেল দ্বিতীয় বর্ষের স¤্রাট, বোরহানউদ্দিন, বিপ্লব, মোমিন ও তরিকুল।
প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থী জানায়, ছাত্রলীগের রেজা গ্রুপের শিক্ষার্থী ফাহিম কম্পিউটার টেকনোলজির ৪র্থ পর্বের শ্রেণি কক্ষে অবস্থান নেয়া শিক্ষার্থী মেহেরীনের সাথে কথা বলতে যায়। এই সময় ছাত্রলীগ নেতা জসিম গ্রুপের মেহেদী তাকে বাঁধা দেয়। তখন দুই জনের মধ্যে তর্ক হয়। পরে ফাহিম ক্যাম্পাসে বের হলে তাকে মেহেদীর নেতৃত্বে জসিম গ্রুপের ক্যাডাররা তাকে ধাওয়া করে। তখন ফাহিম ক্যাম্পাসের সাইকেল ষ্ট্যান্ডে আশ্রয় নেয়। খবর পেয়ে রেজা ও জসিম গ্রপের জুয়েল এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। বিকেলে দ্বিতীয় শিফটের ক্লাস শুরুর পর উভয় গ্রুপ ক্যাম্পাসে লাঠি, জিআই পাইপ ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে জড়ো হয়।
তখন এক পক্ষ অপর পক্ষকে ধাওয়া দিলে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। খবর পয়ে পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। এই সময় ক্যাম্পাস থেকে ৬ শিক্ষার্থীকে আটক করেছে।
এর পর ফাহিম ক্যাম্পাসে বের হয়। তখন জসিম গ্রুপের বান্টি এসে হামলা করে। এতে ফাহিমের মাথা ফেটে গেছে। তাকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
কোতয়ালী মডেল থানার ওসি শাখাওয়াত হোসেন বলেন, ছাত্রীর সাথে কথা বলা নিয়ে এই ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। আটক সকলে শিক্ষার্থী হওয়ায় মুচলেকা রেখে ছেড়ে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ওসি।